BREAKING NEWS

১১ কার্তিক  ১৪২৭  বুধবার ২৮ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

মাছে মিশছে দেদার ফরম্যালিন, টাটকা মাছ চিনবেন কীভাবে?

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 17, 2018 5:53 pm|    Updated: July 17, 2018 5:53 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাছে-ভাতে বাঙালি। কিন্তু তা বোধহয় আর থাকার জো নেই। কারণ মাছে মিশছে ফরম্যালিন। বেশ কয়েকদিনের পুরনো মাছও টাটকা বলে চালাতে বাসি মাছে মেশানো হচ্ছে রাসায়নিক। তার জেরেই টাটকার মতো দেখায় মাছ। আর টাটাকা মাছের দামেই বাসি মাছ কিনে আনছেন বাঙালিরা। বাসি মাছ তো খেতেই হচ্ছে, তাতে শরীরে দফারফা। সেই সঙ্গে কমছে বাঙালির মাছপ্রীতিও। ভাগাড় কাণ্ড কেড়েছিল মাংস। আর ফরম্যালিনের ভয় কাড়ছে মাছ। বাঙালি যাবে কোথায়!

না, কোথাও যাওয়ার দরকার নেই। বরং মাছের বাজারেই যান, তবে অবশ্যই চোখ-কান খোলা রেখে। কয়েকটা ব্যাপার জেনে রাখুন, লক্ষণ অবশ্যই মিলিয়ে নিন। তাহলেই আর কেউ বাসি মাছ আপনার বাজারের ব্যাগে গছাতে পারবেন না।

তা কী কী সেই লক্ষণ?

কানকোর রং

মাছ কেমন, টাটকা তো? এ প্রশ্ন করলেই ব্যাপারিরা মাছের কানকো তুলে বলেন, দেখুন না একেবারে লাল। টাটকা না হয়ে যায় না। তা দেখে অনেকে বিশ্বাসও করে ফেলেন। কিন্তু যা দেখা যায়, তার সবটা সত্যি নয়। যদি কানকোর রং লালচে মেরুন হয় তবে মাছ টাটকা। আর যদি তা কালচে মেরুন নয়, তবে বুঝতে হবে মাছ বাসি, ভিতরে ভিতরে পচন ধরেছে। তবে ফরম্যালিনের সাহায্যে কানকোর রং একই রকম করে রাখা যায়। তাই কানকো দেখালেই লাল রংয়ের মোহে ভুলবেন না।

[  ঋতুস্রাবের সময় মন্দিরে কেন ঢোকা যায় না? জেনে নিন বিজ্ঞানসম্মত কারণ ]

পাখনা ও লেজ

অনেক ব্যাপারিই শুধু মাছের শরীরের উপরই নজর দেন। সেখানেই ফরম্যালিন দ্রবণ দেন কিংবা বরফ দেন। কিন্তু পাখনা বা লেজের দিকে নজর দেন না। যদি দেখেন সেগুলো কোঁচকানো, কুঁকড়ে গিয়েছে তবে বুঝতে হবে মাছটা বাসি। তবে পাখনা দেখে অনেক সময় বোঝা যায় না। সেগুলো এমনিতেই কোঁকড়ানো থাকে। তাছাড়া মাছবিক্রেতারা তা কেটেও রাখেন। তবে গোটা মাছ বা বড় মাছ কেনার সময় এই লক্ষণ দেখে অবশ্যই ভাল-মন্দ বুঝতে পারবেন।

চোখ

চোখ দেখে টাটকা মাছ চেনা সবথেকে ভাল। যদি মাছ ভাল থাকে তবে চোখ পরিষ্কার থাকবে। অন্যথায় তা ঘোলাটে হয়ে উঠবে।

[  ঝিরিঝিরি বৃষ্টিতে সুন্দর থাকতে চান? এভাবেই সাজুন ]

মাছের প্রকৃতি

মাছ হাতে নিয়ে চাপ দিয়ে দেখুন। সাধারণ তাপমাত্রায় মাছে চাপ দিলে, তা হাতে নরম ঠেকবে না। কোনও জিনিসে চাপ দিলে যেমন তার উলটো প্রতিক্রিয়া থাকে এক্ষেত্রেও তা হবে। আর যদি দেখেন পুরো জিনিসটা রাবারের মতো লাগছে, তবে বুঝবেন অবশ্যই মাছে ফরম্যালিন মেশানো আছে। রাসায়নিক দিয়েই সংরক্ষণ করা হয়েছে।

মাছের গন্ধ

টাটকা মাছে কিন্তু টিপিক্যাল মেছো গন্ধ থাকে না। এই গন্ধটা আসে যখন মাছে একটু পচন ধরে অর্থাৎ বাসি মাছে। অবশ্য ফরম্যালিন মেশানো থাকলে গন্ধে কোনও ফারাক পাওয়া যাবে না। সেক্ষেত্রে চেনার উপায়? এখানে আপনাকে সাহায্য করবে মাছি। রাসায়নিক মেশানো মাছে বিশেষ মাছি বসে না। সাধারণ মাছেই মাছি বসবে। তবে তারা অবশ্য টাটকা-বাসি তফাত করে না। কিন্তু নিশ্চিত হতে পারবেন যে, মাছি বসছে মানে সাধারণত কোনও রাসায়নিক মেশানো নেই। এবার অন্যান্য লক্ষণ মিলিয়ে টাটকা মাছ কি না বুঝে নিন।

[  সন্তান ধারণে সমস্যা? নেপথ্যে এই পাঁচটি কারণ নয় তো? ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement