×

৩ চৈত্র  ১৪২৫  মঙ্গলবার ১৯ মার্চ ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নিউজলেটার

৩ চৈত্র  ১৪২৫  মঙ্গলবার ১৯ মার্চ ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নব্বইয়ের দশকে যাঁদের জন্ম, অর্কুট নামটার সঙ্গে তাঁরা সবচেয়ে বেশি পরিচিত৷ তখনও ভোরের আলো দেখেনি ফেসবুক, টুইটার, হোয়াটসঅ্যাপের মতো সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট ও মেসেজিং অ্যাপগুলি৷ নেট দুনিয়ায় ইয়াহু মেসেঞ্জার, রেডিফমেল’রা তখন রাজত্ব করছে৷ আর সেই সময় সোশ্যাল সাইট হিসেবে জনপ্রিয়তার শিখর ছুঁয়েছিল অর্কুট৷ তাই এখনও অর্কুটের নাম শুনলে টেক-স্যাভিরা নস্ট্যালজিক হয়ে পড়েন৷ শুরু হয়ে যায় ধুলো পড়া ‘স্ক্র্যাপবুক’-এর গল্প৷ তাঁদের জন্য দারুণ সুখবর৷

২০১৪ সালে গুগল যখন জানিয়ে দিল, অর্কুট চিরকালের মতো বন্ধ হয়ে যাচ্ছে, তখন ইউজাররা বেশ অসহায় হয়ে পড়েছিলেন৷ অবশেষে ফেসবুকে নতুন করে সংসার পেতে পুরনো প্রেমকে মনের এক কোণেই গচ্ছিত রেখে দেন তাঁরা৷ সেইসব ইউজারদের জন্য দারুণ সুখবর৷ অর্কুট ইজ ব্যাক! হ্যাঁ, একদম ঠিক শুনেছেন৷ চমকে যাওয়ার মতোই খবর! নতুন চেহারায় ও নতুন নামে অর্কুটের প্রত্যাবর্তন হতে চলেছে৷

http-%2F%2Fo.aolcdn.com%2Fhss%2Fstorage%2Fmida

যে সে নয়, খবরের সত্যতা স্বীকার করেছেন স্বয়ং অর্কুট৷ কে এই অর্কুট? গুগলের কর্মী৷ তাঁর নামেই অর্কুটের নামকরণ হয়েছিল৷ তিনিই জানিয়েছেন, orkut.com-এর ধাঁচে তিনি তৈরি করেছেন নতুন একটি সোশ্যাল নেটওয়ার্ক৷ যার নাম hello.com৷ আপাতত এটি একটি মোবাইল অ্যাপ হিসেবে চালু করা হচ্ছে৷ ইংরাজি, তুর্কি, ফরাসি, স্প্যানিশ ও পর্তুগিজ ভাষায় অ্যাপটি ব্যবহার করা যাবে৷ আইফোন ও অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ইউজাররা অ্যাপটি অনায়াসেই ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন৷ তবে এখনও পর্যন্ত এটি ভারতে আসেনি বলে জানিয়েছেন অর্কুট৷ অর্কুটের মতো ‘হ্যালো’ জনপ্রিয় হয়ে উঠলে বিশ্বের প্রায় সব প্রান্তের মানুষই অ্যাপটি ব্যবহারের সুযোগ পাবেন৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং