৪ কার্তিক  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রেম পর্বের প্রথমদিকে কিংবা বিয়ের পর যৌনজীবন বেশ সুখেই কাটছিল। কিন্তু যত দিন যাচ্ছে আপনার সঙ্গীটি ততই যেন সঙ্গমের ইচ্ছা হারাচ্ছেন। কোনওভাবেই তাঁর মন বুঝতে পারছেন না। এমন সমস্যা মহিলা ও পুরুষ উভয়েরই হতে পারে। অনেক সময় এ নিয়ে বচসা, মন খারাপও হয়। এমনকী মনে আসে অন্যরকম চিন্তা। হয়তো অন্য কোনও সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ছেন পার্টনার। হ্যাঁ। এমন সম্ভাবনা যেমন সবক্ষেত্রে উড়িয়ে দেওয়া যায় না, তেমনই শুধু এটিকেই কারণ বলে মনে করারও কোনও মানে নেই। পার্টনারের দৈনন্দিন জীবনের উপরও তাঁর সঙ্গমের ইচ্ছে অনিচ্ছে নির্ভর করে। ঠিক কী কী কারণে মিলনের ইচ্ছা হারান পার্টনার? চলুন জেনে নেওয়া যাক।

[শীতে রোগ থেকে রেহাই চান? তাহলে ঘরেই তৈরি করুন চ্যবনপ্রাশ]

সারাদিনের খাটনি: এই ঘটনা সাধারণত স্বামী-স্ত্রীর ক্ষেত্রে বেশি ঘটে। সারাদিনের হাড়ভাঙা ক্লান্তির পর বাড়ি ফিরে সম্পূর্ণ বিশ্রাম নিতে ভালবাসেন অনেকে। শরীরও অবশ্য সেটাই চায় সেই মুহূর্তে। কিন্তু আপনার মন তো অন্য কিছু চাইতেই পারে। সম্পর্ক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সেক্ষেত্রে সহজ উপায় হল পার্টনারকে সরাসরি নিজের মনের কথা খুলে বলুন। তিনি নিশ্চয়ই বুঝবেন। তা সত্ত্বেও না বুঝলে আপনাকেও সঙ্গীর পরিশ্রমের বিষয়টি মাথায় রেখে সমঝোতা করতেই হবে। তবে শুধু মন রাখতে অনিচ্ছাকৃত মিলনে লিপ্ত না হওয়াই ভাল।

sex-position

ভিডিও গেমে আসক্তি: আপনার প্রেমিক কি অনলাইন গেম বা ভিডিও গেমে আসক্ত? তাহলে আপনার মন খারাপের কারণ রয়েছে। ভাবতে অবাক লাগতেই পারে যে ভিডিও গেমের কারণে সঙ্গী সঙ্গমে অনিচ্ছা প্রকাশ করছেন। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই এমনটা হয়ে থাকে। এটা দিনের পর দিন হতে থাকলে সমস্যাগুলি নিয়ে আলোচনা করুন। সঙ্গমের পুরনো কিছু স্মৃতির কথা বলেও পার্টনারকে কাছে টানতে পারেন।

[নিন্দুকদের পাত্তা না দিয়ে আরও খোলামেলা ছবি পোস্ট করলেন এই অভিনেত্রী]

ঋতুস্রাব: মাসের এই পাঁচটি দিন অনেক মহিলাই মিলনে আপত্তি দেখিয়ে থাকেন। অসহ্য যন্ত্রণা তো বটেই ঋতুস্রাব চলাকালীন মহিলাদের ভীষণভাবে মুড স্যুইং করে। সেই কারণে এই কটা দিন নিজের পার্টনারকে নিজের মতোই থাকতে দিন।

Period-Cramps

অনিয়মিত সঙ্গম: জীবনে কোনও জিনিসই যেমন অতিরিক্ত ভাল নয়, তেমনই উলটো ক্ষেত্রেও একই সমস্যা। অনেকবার পার্টনারকে সঙ্গমে আপত্তি জানিয়েছেন। মানসিকভাবে হয়তো এগোতে পারেননি। সেক্ষেত্রে শেষমেশ যখন রাজি হবেন, মন সায় দেবে, তখন উলটোদিকের মানুষটির প্রতিক্রিয়ায় চমকে যেতেই পারেন। দীর্ঘদিন ধরে আপনার আপত্তি তাঁর চাহিদাকে ধীরে ধীরে কমিয়ে দিয়েছে। তাই প্রত্যেক মানুষেরই নিয়মিত যৌনজীবন থাকা ভাল। আর মন ও শরীর তৃপ্ত থাকলে বাকি কাজও ভালভাবে হয়। তাই না?

সঙ্গমে তৃপ্ত নন: খেয়াল করে দেখুন তো আপনার পার্টনার আপনার সঙ্গে মিলনে সুখী তো? তিনি আপনার থেকে ঠিক যতটা প্রত্যাশা করছেন, তা পূরণ হচ্ছে তো? মিলনে আপনার ঔদাসীন্যতা তাঁর সঙ্গমের ইচ্ছা দমন করতে পারে। সেক্ষেত্রে নিজেদের যৌনজীবনে স্ফূর্তি ফেরাতে নতুন নতুন সেক্স পজিশন ট্রাই করতে পারেন।

sex-pain_web

পর্নে আসক্তি: পার্টনার যদি অত্যধিক পর্নে আসক্ত হন, সেক্ষেত্রেও তা যৌনজীবনে খারাপ প্রভাব পড়তে পারে। অনেক সময় পর্নোগ্রাফির কিছু বিষয় ব্যক্তিগত জীবনেও খোঁজার চেষ্টা করেন তিনি। কিন্তু তেমনটা না হলে তৃপ্ত হন না। আবার অনেকে রাত জেগে নীল ছবিতে এতটাই ডুবে থাকেন যে সঙ্গমের ইচ্ছাই থাকে না।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং