১৭  আষাঢ়  ১৪২৯  রবিবার ৩ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

OMG! প্রেমিকার নাম পুরুষাঙ্গে ট্যাটু করাতে গিয়ে এ কী হল যুবকের?

Published by: Biswadip Dey |    Posted: May 22, 2022 5:20 pm|    Updated: May 22, 2022 5:20 pm

After doing tattoo in private part, Man faces physical problem। Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হৃদয়ে লেখো নাম সে নাম রয়ে যাবে। স্বর্ণযুগের বিখ্যাত গান সকলেরই শোনা। কিন্তু প্রেমিকের হৃদয় কি কেবল ওটুকুতেই বাঁধ মানে? প্রেমের খেয়ালে নাকি হুজুগে কত বিচিত্র শখ যে হয় মানুষের! ইরানের (Iran) এক যুবক যা ঘটিয়ে ফেলেছেন সেকথা শুনলে চমকে উঠবেন সকলেই। প্রেমিকার নামের আদ্যক্ষর তিনি খোদাই করিয়েছিলেন একেবারে নিজের পুরুষাঙ্গে! আর এমন বদ খেয়ালের মূল্যও চোকাতে হয়েছে তাঁকে।

এক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের সূত্রে জানা যাচ্ছে, ২১ বছরের ওই যুবকের প্রেমিকার নামের আদ্যক্ষর এম। তিনি কেবল সেটুকুই ট্যাটু (Tattoo) করাতে চাননি। সেই সঙ্গে লেখাতে চেয়েছিলেন ‘বরো বি সালামত’। অর্থাৎ বাংলায় যার মানে দাঁড়ায় ‘তোমার যাত্রা শুভ হোক’। নিজের প্রেমকে ‘স্থায়ী’ করতে কী অভিনব মনোবাঞ্ছা! এপর্যন্ত শুনতে যতই মজাদার লাগুক, পরের ঘটনায় কিন্তু মজা নেই একফোঁটাও।

[আরও পড়ুন: ঝালমুড়ির আড়ালে মৃত্যু পরোয়ানা! যুবকের প্রাণ বাঁচালেন বর্ধমান মেডিক্যালের চিকিৎসকরা]

ট্যাটু করানোর পর যুবক দেখতে পান তাঁর লিঙ্গের অর্ধেক স্থায়ীভাবে দৃঢ় হয়ে গিয়েছে। এই অবস্থাকে বলা হয় ‘নন ইস্কেমিক প্রিয়াপিজম’। আসলে ট্যাটুর সূচ লিঙ্গের ত্বক পেরিয়ে ভিতরের মাংসপেশির বেশ কিছুটা ভিতরে ঢুকে গিয়েছিল। এর ফলে একটা অঞ্চলে রক্ত জমাট বেঁধে গিয়েছিল।

যদিও একেবারে প্রথমে তেমন কিছু ঘটেনি। প্রথম ৮ দিন পুরুষাঙ্গে ব্যথা ছিল। এবং তা কিছুতেই শক্ত হচ্ছিল না। কিন্তু এরপরই ধীরে ধীরে দেখা যায়, সেটির অর্ধেক শক্ত হয়ে গিয়েছে। এবং অবস্থার পরিবর্তনের কোনও চিহ্ন নেই। দেখতে দেখতে তিন মাস এই ভাবেই কাটে। এরপর ওই যুবক সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসেকর পরামর্শ নেওয়ার। ‘জার্নাল অফ সেক্সুয়াল মেডিসিন’ নামের জার্নালে দাবি করা হয়েছে, এই ধরনের ঘটনা এই প্রথম।

[আরও পড়ুন: মেঘলা আকাশ সত্ত্বেও কেন রোয়িংয়ের অনুমতি? রবীন্দ্র সরোবরে ছাত্রমৃত্যুতে একাধিক প্রশ্নের ভিড়]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে