BREAKING NEWS

২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বুধবার ৭ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

নাবালক পড়ুয়াকে হাতেকলমে যৌন মিলনের পাঠ! শ্রীঘরে শিক্ষিকা

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: May 5, 2022 4:08 pm|    Updated: May 5, 2022 8:47 pm

An Australian teacher accused of grooming a boy for sex | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যিনি শৈশবের পাহারাদার, যিনি পাঠ দেন নৈতিকতার, সেই শিক্ষকের বিরুদ্ধে উঠল ‘যৌন মিলনে উদ্বুদ্ধ’ (Grooming for Sex) করার মতো মারাত্মক অভিযোগ। যা শুনে চমকে যাচ্ছে গোটা দুনিয়ার মানুষ। ইতিমধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার (Australia) এক স্কুলের ওই শিক্ষিকাকে। যদিও স্কুল কর্তৃপক্ষ অস্বীকার করেছে যাবতীয় অভিযোগ। তাদের বক্তব্য, এমন কিছু ঘটেনি, বিদ্যালয়ে নাবালকদের জন্য উপযুক্ত পরিবেশ রয়েছে।

ঘটনাটি দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার পোর্ট অগাস্টার (Port Augusta)। জানা গিয়েছে, তরুণী শিক্ষিকার নাম এমি সিঙ্গলটন (Ammy Singleton)। ২৮ বছরের এমি যখন পোর্ট অগাস্টা ওয়েস্ট প্রাইমারি স্কুলে (Port Augusta West Primary School) কর্মরত ছিলেন তখন এই কাণ্ড করেন বলে অভিযোগ। জানা গিয়েছে, তিনি ওই কাজ করেন গত বছরের ১ নভেম্বর থেকে ৩০ নভেম্বরের মধ্যে। ওই সময়েই এক নাবালককে এমি যৌন মিলনে উদ্বুদ্ধ করেন। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই শিক্ষিকা এবং স্কুলটির চরম সমালোচনা শুরু হয়েছে। অন্যদিকে ছেলেমেয়েদের নিয়ে উদ্বেগে ভুগছেন অভিভাবকেরা। 

Australian teacher accused of grooming boy for sex
অভিযুক্ত শিক্ষিকা।

[আরও পড়ুন: ইউক্রেন যুদ্ধের ধাক্কা! মুদ্রাস্ফীতির সঙ্গে লড়তে ২২ বছরে সুদের হার রেকর্ড বাড়াল আমেরিকার কেন্দ্রীয় ব্যাংক]

যদিও স্কুল কর্তৃপক্ষ যাবতীয় ঘটনা অস্বীকার করে বিবৃতি দিয়েছে। তাদের বক্তব্য, কোনও নাবালকের সঙ্গে এমন কিছু ঘটেনি কখনও। এই বিষয়ে অভিভাবকদের উদ্দেশে লেখা চিঠিতে তারা জানিয়েছে, এমি ছিলেন একজন অস্থায়ী শিক্ষিকা। এমনকী আরও বলা হয়, মাত্র একদিন ওই স্কুলে কাজ করেছেন অভিযুক্ত শিক্ষিকা। প্রিন্সিপাল ডেভিড লটন (David Lawton) বলেন, “এই ঘটনার সঙ্গে আমাদের স্কুলের কোন ছাত্র জড়িত নয়। আমাদের স্কুলের ভেতরে যে পরিবেশ, তাতে বাচ্চাদের নিয়ে উদ্বেগের কোনও কারণ দেখছি না।”

[আরও পড়ুন: ‘দুই বন্ধুর সাক্ষাৎ’, মোদিকে দেখেই বুকে টেনে নিলেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট, ইউক্রেনে শান্তির বার্তা দু’দেশের]

স্কুল কর্তৃপক্ষ দায় ঝেরে ফেলতে চাইলেও অভিযুক্ত শিক্ষিকা এমিকে গ্রেপ্তার করে পোর্ট অগাস্টার পুলিশ। যদিও আদালতে মামলা উঠলে তিনি জামিন পান। শিশু সংক্রান্ত কোনও কাজে যুক্ত থাকবেন না, এই শর্তে শিক্ষিকাকে জামিন দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে তথ্য প্রমাণ জোগাড়ে প্রশাসনকে ১২ সপ্তাহ সময় দিয়েছে অগাস্টা ম্যাজিষ্ট্রেট কোর্ট।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে