১৭  আষাঢ়  ১৪২৯  রবিবার ৩ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

একসঙ্গে দুই প্রেমিকাকে বিয়ের পরই শুরু বিচ্ছেদপর্ব! এক স্ত্রীকে ডিভোর্স দিলেন যুবক

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: May 15, 2022 7:15 pm|    Updated: May 15, 2022 7:18 pm

Youth files divorce one of his wife just after marrying two together | Sangbad Pratidin

সুকুমার সরকার, ঢাকা: একসঙ্গে ছাদনতলায় দুই প্রেমিকাকে বিয়ে করেছিলেন বাংলাদেশের (Bangladesh) যুবক। কিন্তু সে বিয়ে মোটেই মধুর হল না। বিয়ের মাত্র ২২ দিনের মাথায় এক স্ত্রী মমতা রানির সঙ্গে বিচ্ছেদ (Divorce) ঘটালেন রোহিনী চন্দ্র বর্মণ রনি। দেশের উত্তর জনপদ জেলা পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলায় একসঙ্গে দুই প্রেমিকাকে বিয়ে করে রোহিনী চন্দ্র বর্মণ রনি সারা ফেলে দিয়েছিলেন। ‘সংবাদ প্রতিদিন’-সহ একাধিক দৈনিক পত্রিকায় এ নিয়ে খবর প্রকাশিত হয়। কিন্তু এমন ব্যতিক্রমী ঘটনা ঘটিয়ে দু’জনকে একসঙ্গে নিয়ে সংসার সাজাতে ব্যর্থ হলেন রনি। বিয়ের (Marriage) মাত্র ২২ দিনের মাথায় দ্বিতীয় স্ত্রী মমতা রানিকে ডিভোর্স দিলেন যুবক।

গত ২০ এপ্রিল রাতে আটোয়ারী উপজেলার বলরামপুর ইউনিয়নের লক্ষিদ্বরের যামিনী চন্দ্র বর্মনের ছেলে রোহিনী চন্দ্র বর্মন রনি তাঁর বাড়িতে ইতি রানি ও মমতা রানিকে পাশাপাশি বসিয়ে ঘটা করে বিবাহ সম্পন্ন করেন। তিনটি পরিবারের সম্মতিতে এই বিয়ে হয়। বিয়ের পর একসঙ্গে ২ প্রেমিকাকেই স্ত্রীর সম্মান দিয়ে ঘরে তোলেন রনি। কিন্তু ২২ দিন পরই এক স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদ।

[আরও পড়ুন: একরত্তির সারা শরীরে ট্যাটু! ছেলে গ্যাংস্টার হবে? প্রশ্ন তুলে মায়ের নিন্দায় সরব নেটিজেনরা]

কেন ঘটল এমনটা? এর কারণ স্পষ্টভাবে জানা যায়নি অবশ্য। মুখ খোলেননি মমতা রানিও। এদিকে রনির বাবা যামিনী চন্দ্র বলেন, ‘‘মমতা স্বেচ্ছায় আমার ছেলের সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটিয়েছে। এতে আমরা অমত করিনি।’’ গত বৃহস্পতিবার উভয় পরিবারের সম্মতিক্রমে এফিডেভিট মূলে এই বিচ্ছেদ হয়। শনিবার সন্ধ্যায় মমতা রানির ভাই পলাশ চন্দ্র রায় সংবাদমাধ্যমে ডিভোর্সের খবরটি নিশ্চিত করেন।

[আরও পড়ুন: ৩০ বছর ধরে পুরুষ সেজে! মেয়েকে মানুষ করতে মায়ের আশ্চর্য লড়াই]

বলরামপুর ইউনিয়নের গাঠিয়া পাড়া এলাকায়র গিরিশ চন্দ্রের মেয়ে ইতি রানির সঙ্গে রনির প্রেমের (Love) সম্পর্ক ছিল দীর্ঘদিন। তাঁরা একসময়ে গোপনে মন্দিরে গিয়ে বিয়েও করেন। এর মধ্যে রনি নতুন করে প্রেমে পড়েন লক্ষীদ্বার গ্রামের মমতা রানির। গত ১২ এপ্রিল রাতে মমতার সঙ্গে রনি দেখা করতে যান। তখন মমতার পরিবারের লোকজন তাঁদের দেখে ফেললে রনিকে আটকে রাখেন। পরে ১৩ এপ্রিল বিয়ের ব্যবস্থা করে পরিবারের লোকজন। এদিকে রনির বিয়ের খবর শুনে তাঁর বাড়ি গিয়ে অনশন শুরু করেন ইতি রানি। পরে ২০ এপ্রিল রাতে রনির বাড়িতে ফের আনুষ্ঠানিকভাবে দুই বিয়ে একসঙ্গে সম্পন্ন হয়।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে