১২  আষাঢ়  ১৪২৯  সোমবার ২৭ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

একরত্তির সারা শরীরে ট্যাটু! ছেলে গ্যাংস্টার হবে? প্রশ্ন তুলে মায়ের নিন্দায় সরব নেটিজেনরা

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: May 15, 2022 6:56 pm|    Updated: May 15, 2022 6:57 pm

Tattoo-obsessed mother is SLAMMED for covering her one-year-old BABY with Tattoo | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নিজেদের পছন্দ-অপছন্দ সন্তানের ওপর চাপিয়ে দেওয়া বাবা-মায়েদের চেনা ‘রোগ’। তথাপি এমন উদাহরণ ভাবা যায় না। যে কাণ্ড করেছেন আমেরিকার (America) এক তরুণী মা। নিজের এক বছরের ছেলের সারা গায়ে ট্যাটু (Tattoo) করিয়েছেন তিনি। কেন? যেহেতু তাঁর ট্যাটু খুব পছন্দের। এই ঘটনায় ওই মায়ের চরম নিন্দা শুরু হয়েছে নেট মাধ্যমে। কেউ কেউ তো প্রশ্ন ছুঁড়েছেন, ছেলেকে গ্যাংস্টার বানাতে চান?

আমেরিকার ফ্লোরিডার বাসিন্দা বছর ঊনত্রিশের ওই মায়ের নাম সামেইকা মরিস (Shamekia Morris)। তিনি পেশায় পোশাক শিল্পী। তাঁর নিজের শরীরেও ট্যাটু ধরানোর জায়গা নেই! ব্যাপারটা ভীষণই পছন্দ করেন। সামেইকা পুত্র সন্তানের মা হন ২০২১ সালে। ছেলের নাম রেখেছেন ট্রেলিন। সেই বছর খানিক বয়সি খুদের শরীরেরও ট্যাটু করিয়েছেন। মায়ের মতোই ট্রেলিনের পেট-হাত-পায়ে অদ্ভূত সব ছবি। তবে এই ট্যাটু অস্থায়ী। ট্যাটু করানোর সময় ব্যথা পায়নি খুদে। তথাপি এই ঘটনায় হতবাক হয়েছেন নেটিজেনদের একাংশ।

[আরও পড়ুন: রেস্তরাঁয় এ কী কাণ্ড? খাবারের প্লেট থেকে টেবিলে লাফ মুণ্ডহীন ব্যাংয়ের]

সোশ্যাল মিডিায়ায় মা ও সন্তানের ছবি দেখে ক্ষেপে গেছেন অনেকে। ট্রোলিংয়ের শিকার মাকে বলা হয়েছে, আপনি আসলে মা হওয়ার যোগ্যই না। কারও বক্তব্য, এভাবে সন্তানকে মানুষ করলে সে ভবিষ্যতে ঠিক গ্যাংস্টার হবে। বড় হয়ে সমাজবিরোধী কাজ করবে ছেলে। সামেইকা অবশ্য এইসব মন্তব্যে পাত্তা দিতে নারাজ। তিনি জানিয়েছেন, যখন আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। সেই সময় পার্লারে গিয়ে ট্যাটু করানোর ছবি পোস্ট করে ছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। যা দেখে অনেকেই নিন্দামন্দ করেন। কেউ কেউ বলেন, সন্তানের ত্বকের সমস্যা হবে। অনেকে আবার ব্যঙ্গ করে বলেন, শরীরে ট্যাটু নিয়ে জন্মাবে আপনার সন্তান। আমি এসব মন্তব্যকে পাত্তা দিই না কখনই।

[আরও পড়ুন: ৩০ বছর ধরে পুরুষ সেজে! মেয়েকে মানুষ করতে মায়ের আশ্চর্য লড়াই]

সামেইকা আরও বলেন, “আমি জানি, আমি খারাপ মা নই। মানুষের ভাবনা মানুষের কাছে। আমরা (সামেইকা ও তাঁর সন্তান) যেভাবে বাঁচতে চাই সেভাবেই বাঁচব।” উল্লেখ্য, সামেইকা সামাজিক মাধ্যমে রীতিমতো জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব। তার ফলোয়ারের সংখ্যাও কম নয়। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে