BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ২৩ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

আপনার ফোনে কি রয়েছে Truecaller অ্যাপ? জানেন এর একডজন গুণ?

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 11, 2018 5:09 pm|    Updated: September 17, 2019 11:43 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: Truecaller-এর মতো দরকারি অ্যাপ এখন প্রায় সকলেরই স্মার্টফোনে রয়েছে। এই অ্যাপটি নিয়ে খুব বেশি ভূমিকা না করে, সরাসরি আসা যাক এটি মূলত কী কাজে লাগে সেই আলোচনায়। আপনি জানেন নিশ্চয়, কোনও অজানা নম্বর থেকে ফোন এলে এই অ্যাপটি আপনাকে জানিয়ে দেয়, যে ফোন করেছে তাঁর নাম। নিজে থেকেই ব্লক করে দেয় কিছু ‘স্প্যাম কলস’। কিন্তু অনেকেই সম্ভবত জানেন না, যে এই জনপ্রিয় অ্যাপটি এছাড়াও প্রায় একডজন কাজে পারদর্শী। কী কী কাজ করতে পারে এই Truecaller, জেনে নিন এই প্রতিবেদনে।

১. প্রথমেই আপনার একটি প্রোফাইল তৈরি ও সেটিকে মডিফাই করতে পারবেন Truecaller-এ। আপনার নাম, ফোন নম্বর, ই-মেল আইডি এমনকী আপনার কর্মস্থলের প্রাথমিক পরিচিতিও জুড়ে দেওয়া যায় এই অ্যাপে। এর ফলে যখন আপনি এমন কাউকে ফোন করবেন- যাঁর কাছে আপনার ফোন নম্বর নেই, আপনার নাম ও প্রাথমিক পরিচয় জেনে যাবেন।

২. আপনি বুঝি চান না আপনার এক্স গার্লফ্রেন্ড বা কোনও বিমা সংস্থার কর্মী আপনাকে ফোন করুক? খুব সহজেই আপনি অযাচিত সেই সব ব্যক্তির ফোন নম্বর ‘ব্লক’ ও ‘স্প্যাম’ বলে চিহ্নিত করতে পারবেন।

৩. ইন্টারনেট চালু না থাকলেও কাজ করে ট্রু-কলার। তবে আংশিকভাবে।

৪. এই অ্যাপটির মাধ্যমে ‘ভিডিও কল’-ও করা যায়। তবে যেহেতু ওই কলটি ‘গুগল ডুও’-র মাধ্যমে হয়, তাই আপনার স্মার্টফোনে ওই অ্যাপটিও থাকতে হবে। ট্রু-কলার-এর ইন্টারফেসেই ফোন কল, এসএমএস, ভিডিও কল, কাউকে ব্লক বা স্প্যাম বলে চিহ্নিত করা যায়।

৫. ট্রু-কলারকে আপনি সহজেই আপনার ফোনের ‘ডিফল্ট’ ডায়ালার হিসাবে সেট করতে পারেন। করতে পারেন মেসেজিং অ্যাপ হিসাবে। এর ফলে আপনি মিসড কল অ্যালার্ট বা নোটিফিকেশন পাবেন সহজেই।

৬. ট্রু-কলার অ্যাপটির ইন্টারফেস খুবই সহজ। এই অ্যাপটি খুললেই আপনি জরুরি পরিষেবা যেমন ব্লাড ব্যাঙ্ক, হাসপাতাল, ব্যাঙ্ক বা রেলের যাবতীয় ফোন নম্বর পেয়ে যাবেন।

৭. শুধু নাম বা স্রেফ ই-মেল আইডি মনে থাকলেও সেটি ব্যবহার করে এই অ্যাপে তাঁর ফোন নম্বর খুঁজে পেতে পারেন। তবে কিছু কিছু পরিষেবা পেতে আপনাকে সামান্য পয়সা খরচ করতে হবে।

৮. এমনিতে ট্রু-কলার একটি টপ রেটেড ফ্রি অ্যাপ। কিন্তু ওই যে বললাম, কিছু নির্দিষ্ট ও অতিরিক্ত পরিষেবা পেতে আপনাকে সামান্য কিছু পয়সা খরচ করতে হবে। নিতে হবে প্রিমিয়াম সার্ভিস।

৯. আপনি চাইলে আপনার নম্বরকে ট্রু-কলার থেকে ‘আনলিস্ট’ বা সরিয়েও নিতে পারেন। https://www.truecaller.com/unlisting ভিজিট করুন ও ধাপে ধাপে ট্রু-কলার থেকে নিজের নম্বরকে সরিয়ে ফেলুন।

১০. ট্রু-কলার অ্যাপেও রয়েছে ‘লাস্ট সিন’ অপশন। কে কতক্ষণ আগে অনলাইন ছিলেন বা ফোন করছিলেন- সে সবই অ্যাপটি খুললেই দেখা যায়।

১১. সারাদিন প্রচুর আজেবাজে এসএমএস আসছে। মেসেজিং ফিল্টার ‘অন’ করে নিন, সব জাঙ্ক এসএমএস একটি আলাদা স্প্যাম ফোল্ডারে গিয়ে জমা হবে। আপনার দরকারি এসএমএস আপনার কাছে সুরক্ষিত থাকবে।

১২. HDFC, ICICI বা Axis Bank-এর সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে ট্রু-কলার নিয়ে এসেছে ‘ট্রু-কলার পে’ অপশন। যার মাধ্যমে কাউকে টাকা পাঠানোই হোক বা কারও ফোনে রিচার্জ করে দেওয়া- খুব সহজেই বাড়িতে আরাম করে বসে নগদহীন লেনদেন সেরে ফেলতে পারবেন।

ট্রু-কলার এত মতো ছোট্ট একটি অ্যাপের এত গুণ আছে জানতেন? তাহলে আর দেরি না করে এখনই আপনার প্রিয় বন্ধুকে এই প্রতিবেদনটি শেয়ার করুন।

দেখে নিন ভিডিও:

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement