২৭ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

আইফোন অর্ডার করে হাতে এল সাবান! একলক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ পেলেন যুবক

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: August 1, 2019 8:57 pm|    Updated: August 1, 2019 8:57 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ই-কমার্স সংস্থা স্ন্যাপডিলের ওয়েবসাইটে আইফোনের দুর্দান্ত অফার দেখে অর্ডার করেছিলেন পেশায় ইঞ্জিনিয়ার পারভিন কুমার শর্মা। কোম্পানির কথামতো ফোনের টাকাও মিটিয়ে দিয়েছিলেন
অনলাইনে। দু’দিন বাদে কুরিয়ার সংস্থার তরফে আইফোনের বাক্সও পৌঁছে যায় তাঁর দেওয়া ঠিকানায়। কিন্তু, সেটি খুলতেই চোখ কপালে ওঠে তাঁর। দেখেন তাতে আইফোনের বদলে রয়েছে সাবান। এরপর স্ন্যাপডিল কর্তৃপক্ষের
কাছে বারবার অভিযোগ জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি। বাধ্য হয়ে মোহালির ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তরে এই বিষয়ে অভিযোগ জানান তিনি। তারপর কেটে গিয়েছে প্রায় দু’বছর। সবকিছু খতিয়ে দেখে পারভিনকে একলক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে তারা। স্ন্যাপডিল, মোবাইল বিক্রেতা ও কুরিয়ার সংস্থার পক্ষ থেকে ওই ক্ষতিপূরণ তুলে দিতে বলা হয়েছে। অযথা হয়রানির জরিমানা ও আর্থিক ক্ষতিপূরণ হিসেবে পারভিনকে এই টাকা দিতে হবে বলে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন: অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ব্যবহার করলে সাবধান! মেসেজের মাধ্যমে ঢুকছে ভাইরাস]

জানা গিয়েছে, ২০১৭ সালের ৪ মার্চ স্ন্যাপডিলে একটি আইফোন সেভেন প্লাসের অর্ডার করেন পারভিন। তার ঠিক দুদিন বাদে ৬ তারিখ একটি কুরিয়ার সংস্থার মাধ্যমে পারভিনের বাড়িতে ওই ফোন সরবরাহ করা হয়। তবে
সেসময় পারভিন না থাকায় তাঁর বাড়ির নিরাপত্তারক্ষীর হাতে মোবাইলের বাক্সটি তুলে দেন কুরিয়ার সংস্থার লোক। বাড়ি ফেরার পর বাক্সটি খুলে পারভিন দেখেন তাতে কোনও ফোন নেই। তার বদলে রয়েছে পাঁচটি বাসন
মাজার সাবান। সঙ্গে সঙ্গে স্ন্যাপডিলের হেল্পলাইনে ফোন করে সমস্ত ঘটনার কথা জানান তিনি। কয়েকদিন বাদে কুরিয়ার সংস্থার লোক এসে সমস্ত কিছু পরীক্ষা করেন। তারপর জানান, এই বিষয়ে তাঁদের কোম্পানির কিছু করার নেই। কারণ বাক্সটি বন্ধ অবস্থাতেই এসেছিল পারভিনের বাড়িতে। এরপর বিষয়টি স্ন্যাপডিলকে জানান হলেও তারা কোনও গুরুত্ব দেয়নি।

যদিও ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তরের তরফে জানানো হয়েছে, পণ্য তৈরির বিষয়ে স্ন্যাপডিলের কোনও ভূমিকা নেই। কিন্তু, যেহুতু তাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমেই অর্ডার করা হয়েছিল, তাই তাদের দায়বদ্ধতা আছে। বিলেও ফোনের কোনও
আইএমইআই নম্বরের উল্লেখ ছিল না। তাই যে কোম্পানি কাছ থেকে এটা কেনা হয়েছে তারা নিজেদের দায় এড়াতে পারে না। পাশাপাশি এই ঘটনায় দায় কিছুটা হলেও বর্তায় কুরিয়ার সংস্থার উপর। তাই তিনজনকেই ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

[আরও পড়ুন: আপনার মুখের হাসিটি আসল না কৃত্রিম? বলে দেবে এই সফটওয়্যার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement