BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৫ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

WhatsApp-এর পর এবার স্তব্ধ Facebook Messenger, নাজেহাল গ্রাহকরা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 4, 2017 5:18 am|    Updated: September 26, 2019 4:16 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২৪ ঘন্টা কাটতে না কাটতেই ফের বিপাকে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা। হোয়াটসঅ্যাপের পর শনিবার সকাল থেকেই বিশ্বের নানা প্রান্তে ঠিকমতো কাজ করছে না ফেসবুক মেসেঞ্জার। অনেকেই মেসেজ, ছবি বা ভিডিও পাঠাতে পারছেন না। নেটিজেনদের ক্ষোভের আঁচ পাওয়া যাচ্ছে টুইটারে। আছড়ে পড়ছে একের পর এক ফেসবুক-বিরোধী টুইট। অনেকেরই অভিযোগ, ডেস্কটপ থেকে চ্যাটবক্স কাজ করছে না। পাঠালেও যাচ্ছে না মেসেজ। দেখা যাচ্ছে না পুরনো মেসেজও।

[আচমকা স্তব্ধ হোয়াটসঅ্যাপ, বিশ্বজুড়ে হয়রানি]


কিন্তু কেন এরকম হল এদিন? এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে খোলসা করে কিছুই জানায়নি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। ২৪ ঘন্টা আগেই ফেসবুক অধীনস্থ জনপ্রিয় অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ কাজ করছিল না। দুনিয়াভর ট্রেন্ডিং হয়ে ওঠে #WhatsAppDown। তারই কি ফের পুনরাবৃত্তি দেখা যাবে? টুইটারে কিন্তু তেমনটাই আঁচ মিলছে। মনে রাখতে হবে, মেসেঞ্জার ও হোয়াটসঅ্যাপের কাঠামোটা কিন্তু মোটামুটি একই। হোয়াটসঅ্যাপের জনপ্রিয়তার ঠ্যালায় কমে আসছিল মেসেঞ্জার অ্যাপের জনপ্রিয়তা। তাই কার্যত বাধ্য হয়ে বিপুল খরচে হোয়াটসঅ্যাপ কিনে নেন ফেসবুকের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ।

[বাঁকা পুরুষাঙ্গে ঝুঁকি থাকছে ক্যানসারের, মত বিশেষজ্ঞদের]

ফেসবুক মেসেঞ্জার আচমকা কাজ বন্ধ করে দেওয়ায় অনুরাগীরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। ক্ষোভ প্রকাশের জন্য তাঁরা বেছে নেন টুইটারকে। সেখানে অনেকে লিখেছেন, সম্ভবত কোনও যান্ত্রিক কারণে মেসেঞ্জার কাজ করছে না। কেউ কেউ তো সাইবার হামলার শিকার হয়েছেন কি না, সেটাও জানতে চেয়েছেন। শুধু ভারতের নানা প্রান্ত থেকেই নয়, আমেরিকা, হংকং, লন্ডন, ব্রাজিলিও কাজ করছে না অ্যাপটি। তবে ফেসবুক চালু রয়েছে। কাজ করছে না শুধুমাত্র মেসেঞ্জার। দেখুন এরকমই কিছু টুইট ও পোস্ট-

[WhatsApp-কে টেক্কা দিতে এবার Paytm কী করল জানেন?]

২০১৬-তেই জনপ্রিয় সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট ফেসবুক মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন থেকে ‘মেসেঞ্জার’ পরিষেবা বাদ দেয়। ফেসবুক অ্যাপ নয়, সেই থেকে আলাদাভাবে মেসেঞ্জারের মাধ্যমে চ্যাট করতে হয় ইউজারদের। বিশেষজ্ঞদের মতে, ফেসবুকে আসক্ত ইউজারদের মেসেঞ্জার অ্যাপের দিকে ঠেলে দিতেই ওই সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ। তবে তারপর খানিকটা হলেও মেসেঞ্জারের জনপ্রিয়তা ফিরেছে। কিন্তু হোয়াটসঅ্যাপকে টক্কর দিতে পারেনি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement