BREAKING NEWS

১৩  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

এবার অ্যাপ ছাড়াই জানা যাবে কলকাতার সব বাসের অবস্থান, দিশা দেখাবে গুগল ম্যাপ

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: April 14, 2022 1:23 pm|    Updated: April 14, 2022 1:28 pm

google map will help to know of west Bengal State bus service | Sangbad Pratidin

নব্যেন্দু হাজরা: বাসের জন্য আর স্টপেজে হা পিত্যেশ করে দাঁড়িয়ে থাকতে হবে না আপনাকে। কলকাতাতে এবার চালু হতে চলেছে রিয়েল টাইম বাস সার্ভিস (Real Time Bus Service)। এর ফলে মোবাইলের স্ক্রিনে হাত বুলিয়েই জানতে পারা যাবে বাসের অবস্থান। শুধু লিখতে হবে কোথা থেকে কোথায় যেতে চান আপনি।

সেক্ষেত্রে কেবল গুগল ম্যাপে (Google Map) গিয়ে আপনার অবস্থান এবং গন্তব্য লিখলেই এসে যাবে এই বিষয়ে যাবতীয় তথ্য। গুগল দেখিয়ে দেবে, কোন কোন বাস ওই রুটে চলবে, তার ভাড়া কত, এমনকী ঠিক কত দূরে তা আছে। কতক্ষণে তা নির্দিষ্ট স্টপেজে এসে পৌঁছবে, তাও জানতে পারবেন আপনি। জানা গিয়েছে, নয়া এই পরিষেবা চালু হয়ে যাবে আগামী ১৫ মে থেকে।এই বিষয়ে পশ্চিমবঙ্গ পরিবহণ নিগমের আধিকারিকদের সঙ্গে গুগল কর্তৃপক্ষের চুক্তিও হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘বাংলা গণতন্ত্রের গ্যাস চেম্বার’, বিধানসভা চত্বরে দাঁড়িয়ে বিস্ফোরক রাজ্যপাল, পালটা স্পিকারের]

উল্লেখ্য, এর আগে পথদিশা (Pathadisha)বলে একটি অ্যাপ ডাউনলোড করে সরকারি বাসের অবস্থান জানতে হত যাত্রীকে। কিন্তু এবার আলাদা করে আর কোনও অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে না। গুগল সার্চ করেই জানা যাবে সমস্ত সরকারি বাসের অবস্থান। ভবিষ্যতে বেসরকারি বাসকেও এই পরিষেবার আওতায় আনা হবে জানা গিয়েছে। এর ফলে যাত্রীদের বাসে যাতায়াত অনেক বেশি সুবিধাজনক হবে বলে জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গ পরিবহণ নিগমের এমডি রজনবীর সিং কাপুর।

[আরও পড়ুন: রাস্তায় দাঁড়িয়েই শিশুকে পড়াতে ব্যস্ত কলকাতার ট্রাফিক সার্জেন্ট! ভাইরাল ‘শিক্ষক পুলিশ’]

নিগমের কর্তারা জানাচ্ছেন, আর যাত্রীদের স্টপে দাঁড়িয়ে থেকে ভাবতে হবে না, পরবর্তী বাস কখন আসবে, বা তা ঠিক কতদূরে আছে। ইলেক্ট্রনিক টিকেটিং মেশিনে (ETM) থাকবে জিপিএস (GPS)। যার ফলে সহজেই বাসকে ট্র‌্যাক করা যাবে। ইটিএম দিয়ে টিকিটও কাটা যাবে। আধুনিক এই ইটিএম মেশিনগুলি প্রত্যেক কন্ডাক্টরের কাছে থাকবে। এতদিন স্টপে দাঁড়িয়ে বাসের জন্য অপেক্ষা করে থাকতে হত যাত্রীদের। অনেক ক্ষেত্রেই বাস আসবে না ভেবে তাঁরা ব্রেক জার্নি করে গন্তব্যে পৌঁছতেন। তাতে খরচ অনেক বেশি হত। আশা করা যাচ্ছে, সেই দিনের অবসান হল এবার। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে