৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শুক্রবার ২২ নভেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শুক্রবার ২২ নভেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সস্তার ইন্টারনেটের সৌজন্যে এখন স্মার্টফোন ভরতি করে গান সেভ রাখার অভ্যেস অনেকেরই নেই। যে মুহূর্তে যে গানটা শুনতে ইচ্ছা করে একক্লিকে অনলাইনেই তার সন্ধান মেলে। সেভ রেখে আবার অফলাইনেও তা শুনে নেওয়া যায়। কিন্তু এমন কিছু ওয়েবসাইট আছে, যেখান থেকে গান শুনতে গেলে আপনার সাধের মোবাইলটি ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে। তাই জেনে নিন মোবাইলে কোন মিউজিক অ্যাপগুলি রাখবেন গান শোনার জন্য। রইল পাঁচটি অ্যাপের সন্ধান যেখানে বিনামূল্যেই শুনতে পারবেন গান।
Jio Saavn:
অল্পদিনের মধ্যেই বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে সাভান মিউজিক অ্যাপটি। বলিউড-হলিউড তো বটেই নানা আঞ্চলিক ভাষার গানও শোনা যায় এই অ্যাপে। ইউজার নিজের মতো করে প্লে-লিস্টও বানিয়ে নিতে পারেন। এছাড়াও ‘Saavn Originals নামের একটি ক্যাটাগরিও রয়েছে। যেখান থেকে অন্যরকম মিউজিক ডাউনলোড করে শুনতে পারবেন যে কোনও সময়। এসবই পাবেন বিনামূল্যে। আরও আকর্ষণীয় কিছু ক্যাটাগরি রয়েছে এই অ্যাপে। যদিও সেসব পেতে গেলে মাসে ৯৯ টাকা খরচ করতে হবে আপনাকে।

[আরও পড়ুন: ৭ আগস্ট শুরু আমাজন ফ্রিডম সেল, জেনে নিন আকর্ষণীয় অফারগুলি]

SoundCloud:
জার্মানের এই মিউজিক স্ট্রিমিং অ্যাপটিতে আন্তর্জাতিক মিউজিকের অফুরন্ত কালেকশন রয়েছে। নানা নামী-অনামী গায়কের অজানা-অচেনা গান খুঁজে পাওয়া যাবে এখানে। শুধু গান শোনাই নয়, আপনিও নিজের গান এখানে আপলোডও করতে পারবেন। নিজের পছন্দের গায়কের গানের নিচে কমেন্টও করার সুযোগও পাবেন। এছাড়াও লাইক, শেয়ার, রিপোস্টও করতে পারেন নিজের ফেভরিট ট্র্যাক। ভাবছেন এসব কিছুর জন্য কত খরচ হবে? না, কোনও মূল্য দিতে হবে না আপনাকে।
Google Play Music:
অ্যান্ড্রয়েড ইউজারদের অনেকেই এই অ্যাপটি ব্যবহার করেন। এর ফ্রি ভার্সানটিতে ভারতীয় গানের সঙ্গে শোনা যায় রেডিও-ও। এছাড়াও অনলাইন গুগল ক্লাউড লাইব্রেরির সৌজন্যে ৫০ হাজার পর্যন্ত গান বিনামূল্যে আপলোড করা যায়। গুগল অ্যাকাউন্ট খুলে যে কোনও স্মার্টফোন থেকেই গুগল প্লে মিউজিকে গান শোনা যায়।

[আরও পড়ুন: নাম বদলে যাচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ ও ইনস্টাগ্রামের! জানিয়ে দিল ফেসবুক]

YouTube:
এ অ্যাপের কথা জানেন না বা ব্যবহার করেন না, বর্তমান প্রজন্মের মধ্যে এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া কঠিন। এই অ্যাপে বিনামূল্যে অনলাইন ও অফলাইনে গান শোনা যায়। দেখা যায় অফুরন্ত ভিডিও। একনজরেই জেনে নেওয়া যায় গানের খুঁটিনাটি। যেমন গায়ক ও ছবির নাম, সুরকারের পরিচয় ইত্যাদি। যে সব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করে রাখবেন, নতুন গান বা ভিডিও এলে সেখান থেকে আসবে নোটিফিকেশনও। বর্তমানে আবার ৯৯ টাকার মাসিক সাবস্ক্রিপশনে মিলবে আরও নানা সুযোগ-সুবিধা।
Mixcloud:
আপনার পছন্দ অনুযায়ী জোনার বেছে নিতে পারেন এখানে। ডিস্ক জকিদের কাছে এই অ্যাপটি দারুণ আকর্ষণীয়। কারণ নানা ধরনের মিক্স মিউজিকে আপডেটেড থাকে অ্যাপটি। তবে পুরোটাই আপনাকে শুনতে হবে অনলাইনে। ইচ্ছেমতো ফ্রি অডিও শোও উপভোগ করতে পারবেন নিখরচায়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং