BREAKING NEWS

১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  সোমবার ৫ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিশ্ববাসীর মন কাড়ছে এদেশের প্রযুক্তি, স্মার্টওয়াচ বিক্রিতে চিনকে টপকে গেল ভারত

Published by: Biswadip Dey |    Posted: August 27, 2022 8:19 pm|    Updated: August 27, 2022 8:24 pm

India surpasses China, Becomes 2nd-largest Smartwatch Market Globally। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্মার্টওয়াচের বাজারে ভারতের বাজিমাত। পিছনে ফেলল চিনকেও। ‘কাউন্টারপয়েন্ট রিসার্চে’র এক রিপোর্টের দাবি, গত বছরের তুলনায় অর্থাৎ ‘ইয়ার-অন-ইয়ার’ হিসেবে একধাক্কায় ৩৪৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে এদেশের স্মার্টওয়াচের বাজার! এই মুহূর্তে সারা বিশ্বের নিরিখে ভারত দ্বিতীয় স্থানে।

মুদ্রাস্ফীতি কিংবা রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের মতো আন্তর্জাতিক অস্থিরতার পরিস্থিতিতেও দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকের হিসেব চমকে দিচ্ছে। দেখা যাচ্ছে ১৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে সারা বিশ্বের স্মার্টওয়াচ বিক্রি। এই বৃদ্ধির অন্যতম কারণ ভারতীয় পণ্যের দুর্দান্ত চাহিদা। দেশীয় দুই ব্র্যান্ড ‘ফায়ার-বোল্ট’ ও ‘নয়েজ’ এই মুহূর্তে স্মার্টওয়াচের ব্র্যান্ড হিসেবে শীর্ষে।

[আরও পড়ুন: পুলিশের সাহায্য নিয়েই উত্তরপ্রদেশে অসহায় বিধবার বাড়ি বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দিল গুন্ডারা!]

এদিকে মুখ থুবড়ে পড়েছে চিনের বাজার। হুয়েই, ইমো অথবা আমাজফিটের মতো ব্র্যান্ডের বিক্রি অনেকটাই কমেছে। একই সঙ্গে লাফিয়ে বেড়েছে ভারতীয় ব্র্যান্ডগুলির বিক্রি। গত বছরের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকের সঙ্গে তুলনায় ‘নয়েজে’র বিক্রি বেড়েছে ২৯৮ শতাংশ। তবে ভারতীয় বাজারে ‘ফায়ার-বোল্ট’ এই মুহূর্তে শীর্ষে। যার জেরে ‘নয়েজে’র বিক্রি দেশীয় বাজারে কমেছে ২৬ শতাংশ। কোন অঙ্কে বাজিমাত করছে দেশীয় ব্র্যান্ডের স্মার্টওয়াচ? এর পিছনে অন্যতম কারণ হল ভারতীয় বাজারে স্মার্টওয়াচের কম দাম। পরিসংখ্যান বলছে, ভারতীয় বাজারে রপ্তানি করা ৩০ শতাংশ মডেল ৪ হাজার টাকার কম দামে বিক্রি হয়েছে।

গত ত্রৈমাসিকেও বিশ্ব বাজারে দ্বিতীয় স্থানে ছিল চিন। কিন্তু আর্থিক মন্দার ফলে তারা এখন তিন নম্বরে। তাদের ‘হুয়েই’ ব্র্যান্ড হিসেবে সেদেশের বাজারে শীর্ষে রয়েছে। রপ্তানিও বেড়ে ১৩ শতাংশ। কিন্তু সার্বিক ছবিটা আশাপ্রদ নয়। মনে করা হচ্ছে, ভারতীয় বাজারে এই পণ্যগুলি বিক্রি করতে না পারলে চিনের স্মার্টওয়াচের বাজারে উন্নতি হবে না। কিন্তু ভারতীয় বাজারের যা পরিস্থিতি তাতে এখনই দেশীয় পণ্যকে টেক্কা দেওয়াটা বড় চ্যালেঞ্জ চিনের। অন্যদিকে ইউরোপের বাজারে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব পড়ায় তারা নেমে গেছে চতুর্থ স্থানে।

[আরও পড়ুন: পানীয় জলে ডায়রিয়ার জীবাণু? নদিয়ায় কলের জল খেয়ে মৃত্যু কিশোরের, অসুস্থ অন্তত ৩০]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে