BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৭ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অনলাইনে আর্থিক প্রতারণার শিকার? আপনার খোয়া যাওয়া টাকা ফেরত দেবে ‘সাইবার সেফ’

Published by: Sayani Sen |    Posted: October 25, 2019 11:02 am|    Updated: October 25, 2019 11:04 am

An Images

অর্ণব আইচ: ব্যাংককর্মী সেজে মোবাইলে ফোন করে প্রতারণা হোক অথবা কোনও অ্যাপের সাহায্যে। প্রতারণার দশ মিনিটের মধ্যেই খোয়া যাওয়া টাকা ফেরত এনে দেবে ‘সাইবার সেফ’। এই সফটওয়্যার স্বয়ংক্রিয়ভাবে বন্ধ করে দেবে প্রতারকের অ্যাকাউন্ট। রোখা যাবে ফোন করে এটিএম প্রতারণা। সারা দেশজুড়ে শুরু হচ্ছে এই প্রক্রিয়া। প্রাথমিকভাবে কলকাতা পুলিশের কয়েকজন অফিসারকেও এই বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া শুরু হয়েছে।

ব্যাংকের গ্রাহককে মোবাইলে ফোন করে নিজেদের ব্যাংককর্মী বলে পরিচয় দেয় প্রতারকরা। তারপর এটিএম কার্ডের নম্বর জেনে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে তুলে নেওয়া হয় টাকা। একইভাবে প্রতারণা করা হয় অ্যাপ পাঠিয়ে ওয়েবসাইটের লিংক ক্লিক করেও। প্রত্যেকটি ক্ষেত্রেই পাঠানো হয় ওটিপি। সেই ওটিপিও ব্যাংকের গ্রাহকরা জানিয়ে দেন প্রতারকদের। বারবার প্রচার ও সতর্ক করা সত্ত্বেও এই ধরনের প্রতারণা হচ্ছে। কলকাতা ছাড়াও সারা দেশজুড়ে হচ্ছে এই প্রতারণা। সেই কারণেই সারা দেশজুড়ে প্রত্যেকটি শহর ও রাজ্যের পুলিশ, গোয়েন্দা বিভাগ ও কেন্দ্রীয় সংস্থাকে জুড়ে তৈরি হয়েছে ‘সাইবার সেফ’ সফটওয়্যার। তাতে শামিল হয়েছে কলকাতা পুলিশও। কলকাতা পুলিশের পক্ষে এই ব্যবস্থার নোডাল অফিসার হচ্ছেন ডিসি (সাইবার)।

[আরও পড়ুন: দ্রুত নাগরিকত্ব বিল পাসের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীকে ১ কোটি চিঠি পাঠাচ্ছে বঙ্গ বিজেপি]

এই সফটওয়্যার চালু হওয়ার পর কেউ যদি ভুল করে প্রতারকদের ফোন ধরেন বা ওটিপি তাদের দিয়ে দেন, তাতেও অসুবিধা হবে না। শুধু যাঁকে প্রতারণা করা হয়েছে, তিনি যেন যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বিষয়টি পুলিশকে জানান। পুলিশকে জানানোর সঙ্গে সঙ্গেই ওই প্রতারকের ফোন নম্বরটি ব্যবহার করে স্বয়ংক্রিয়ভাবেই তদন্ত শুরু করবে সফটওয়্যার। কয়েক মিনিটের মধ্যেই জানা যাবে ওই প্রতারকের পরিচয় ও তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টের তথ্য। এমনকী, যে অনলাইন ওয়ালেটের মাধ্যমে অভিযোগকারীর ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা অন্য ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাঠানো হয়েছে, তার তথ্যও মিলবে। মিনিট দশেকের মধ্যেই বন্ধ করে দেওয়া যাবে প্রতারকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ও অনলাইন ওয়ালেট। অভিযোগকারীও ফেরত পাবেন টাকা। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সারা দেশজুড়ে এই সফটওয়্যার কার্যকর করার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement