BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

লাগাতার বিদ্বেষমূলক পোস্টে বিরক্ত বিজ্ঞাপনদাতারা, বিপুল ক্ষতির মুখে Facebook

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: June 28, 2020 4:23 pm|    Updated: June 28, 2020 4:23 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জর্জ ফ্লয়েড হত্যার পরও শিক্ষা নেই। লাগাতার বর্ণবিদ্বেষমূলক পোস্টে নারাজ একের পর এক বিশ্বের নামী সংস্থা বিজ্ঞাপন সরিয়ে নিচ্ছে বিশ্বের জনপ্রিয়তম সোশ্যাল মিডিয়া Facebook থেকে। যার ফলে বিপুল ক্ষতির মুখে এই মার্কিন সংস্থা। সম্প্রতি ৭.২ মার্কিন বিলিয়ন ডলার লোকসান হয়েছে Facebook-এর কর্ণধার মার্ক জুকারবার্গের। গত শুক্রবার যার জেরে সংস্থার শেয়ার পড়ল ৮.৩ শতাংশ। গত তিন মাসের নিরিখে যা সর্বাধিক। বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম বিজ্ঞাপনদাতা Unilever সোশ্যাল মিডিয়ায় পণ্যের বিজ্ঞাপন বয়কট করায় আরও ক্ষতির মুখে পড়েছে Facebook। Unilever জানিয়েছে, জুকারবার্গের সংস্থার সঙ্গে সবরকম সম্পর্ক ছিন্ন করতে চলেছে।

শেয়ারের দাম পড়ে যাওয়ায় আন্তর্জাতিক বাজারে Facebook-এর বাজার দর ৫৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার কমেছে। জুকারবার্গের মোট সম্পত্তির পরিমাণও প্রায় ৮২ বিলিয়ন ডলার কমেছে। ভারতীয় মুদ্রায় যা অনেক। ব্লুমবার্গ বিলিওনেয়ার সূচক অনুযায়ী, বিপুল লোকসান হয়েছে জুকারবার্গ ও তাঁর সংস্থার। যার ফলে একধাক্কায় বিশ্বের ধনীতম ব্যক্তিদের তালিকায় চার নম্বরে নেমে গিয়েছেন সংস্থার কর্ণধার। তাঁর ঠিক উপরে উঠে এসেছেন ফ্যাশন হাউস Louis Vuitton-এর কর্ণধার বার্নার্ড আরনো। এক এবং দুইয়ে রয়েছেন যথাক্রমে Amazon-এর মালিক জেফ বেজোস এবং Microsoft-এর মালিক বিল গেটস।

[আরও পড়ুন: ঘৃণা ছড়ানো রুখতে উদ্যোগ, এবার বিকৃত পোস্ট চিহ্নিত করবে ফেসবুক]

শুধু Unilever-ই নয়, ভেরিজন কমিউনিকেশন থেকে শুরু হারশের মতো নামী সংস্থাও Facebook-এ বিজ্ঞাপন দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে। সবারই একই অভিযোগ, জুকারবার্গের সংস্থা বর্ণবিদ্বেষ, উসকানিমূলক পোস্ট, ভুয়ো তথ্য শেয়ারে নজরদারি করতে ব্যর্থ। যেমন বিশ্বের জনপ্রিয় নরম পানীয় সংস্থা Coca-Cola আগামী তিরিশ দিনের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজ্ঞাপন দেওয়া বন্ধ করেছে। উল্লেখ্য, এই প্রসঙ্গে শুক্রবার জুকারবার্গ জানিয়েছেন যে, পাঠযোগ্য পোস্টও যদি তা সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মের নিয়ম ভাঙে তাহলে ব্যবহারকারীকে সতর্ক করা হবে। তার জন্য বিশেষ কিছু ট্যাগ ব্যবহার করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। জুকারবার্গ আরও বলেন, “বর্ণবাদ, জাতিবাদ, সাম্প্রদায়িক, শারীরিক বা যৌন হেনস্তামূলক, লিঙ্গ বৈষম্যমূলক বিষয়বস্তু রয়েছে এমন যেকোনও কিছু রুখতে নতুন এই পদ্ধতি কার্যকর করা হবে। এমনকি শরণার্থীদেরও যাতে কোনও রকমের ঘৃণার শিকার না হতে হয় সে ব্যাপারেও ফেসবুক নিজস্ব ভূমিকা পালন করবে।”

[আরও পড়ুন: চাঙ্গা হবে দেশের অর্থনীতি, ভারতের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের এবার ঋণ দেবে Google]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement