২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অভূতপূর্ব সাফল্য মুকেশ আম্বানির, বিশ্বের সেরা ব্র্যান্ডের তালিকায় দ্বিতীয় রিলায়েন্স

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: August 5, 2020 10:43 pm|    Updated: August 5, 2020 11:25 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বের দরবারে ফের নিজের সাফল্যের নজির তুলে ধরল ভারত। দেশের অন্যতম খ্যাতনামা শিল্পপতি মুকেশ আম্বানির (Mukesh Ambani) রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের মুকুটে জুড়ল আরেকটি পালক। বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা ব্র্যান্ড হিসেবে নাম উঠে এল মুকেশ আম্বানির সংস্থার। সামনে শুধু মার্কিন সংস্থা Apple. ফিউচার ব্র্যান্ড ইনডেক্স ২০২০’এর বিচারে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবসার বহর বিশ্বের মধ্যে দ্বিতীয়।

বুধবার এই ঘোষণা করতে গিয়ে মুকেশ আম্বানির সংস্থার ভূয়সী প্রশংসা করেছেন ফিউচার ব্র্যান্ডের কর্তারা। বলা হয়েছে, রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ (Reliance Industries Limited) বিশ্বের মধ্যে বেশ জনপ্রিয়, ভরসাযোগ্য সংস্থা। উদ্ভাবনী ক্ষমতা, উন্নতি এবং গ্রাহকদের সঙ্গে সংযোগ স্থাপনের ক্ষেত্রে প্রশংসনীয় ভূমিকা রয়েছে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের। এবং এর গোটা কৃতিত্বই তাঁরা দিয়েছেন সংস্থার কর্ণধার মুকেশ আম্বানিকে। ভারতীয় শিল্পপতি হিসেবে নিজের যেভাবে দেশের সাধারণ মানুষের কাছে সংস্থার চাহিদা বাড়িয়ে তুলেছেন, তা বেশ দক্ষতার বিষয় বলেই মনে করছেন বিচারকরা।

[আরও পড়ুন: মাস দেড়েকের মধ্যেই সম্পন্ন হবে চুক্তি! একাধিক দেশে টিকটকের মালিক হচ্ছে মাইক্রোসফট]

বিশ্বজুড়ে মহামারী আবহেও নিজের লক্ষ্যে স্থির ছিলেন মুকেশ আম্বানি। কর্তব্যে ছিলেন অবিচল। তাই তো গত মাসেই সাফল্যের সিঁড়িতে আরেকধাপ উঠে গিয়েছিলেন আম্বানিপুত্র। মন্দার বাজারে স্রোতের উলটো দিকে হেঁটে বিশ্বের কোটিপতিদের ছাপিয়ে গিয়েছেন তিনি। আপাতত বিশ্বের পঞ্চম ধনী ব্যক্তির নাম মুকেশ আম্বানি। অথচ জুলাই মাসের ১০ তারিখেও তিনি ছিলেন সপ্তম স্থানে। মাত্র দশ-বারো দিনের মধ্যে দু’ধাপ উঠে আসেন মুকেশ। তাঁর মোট সম্পদের মূল্য ৭৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ভারতীয় মুদ্রায় যা দাঁড়ায় প্রায় ৫.৬১ লক্ষ কোটি টাকা। সারা জীবন সঠিক পরিকল্পনা আর পরিশ্রমের ফলে এবার আরও বড় স্বীকৃতি মিলল। বিশ্বের সেরা ব্র্যান্ডের তালিকায় Apple’এর পরেই স্থান করে নিল মুকেশের রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড।

[আরও পড়ুন: ভারতের মোবাইল ফোনের বাজারে বিপুল বিনিয়োগ, তালিকায় রয়েছে Apple-ও, দাবি মন্ত্রীর]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement