BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  রবিবার ৬ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

গুগলে এই চারটি শব্দ লিখলেই মিলছে আধারের তথ্য, শিকেয় নিরাপত্তা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: March 17, 2018 8:48 am|    Updated: August 19, 2019 12:15 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: : ফের আধার তথ্য ফাঁসের অভিযোগ। ফের আশঙ্কা, উদ্বেগ, নিন্দার ঝড় নানা মহল থেকে। ফের চাপে সরকার। কারণ, স্রেফ গুগল সার্চ করেই আপনি পেয়ে যাচ্ছেন যে কোনও অপরিচিত ব্যক্তির আধার সংক্রান্ত তথ্য। আর তাতেই আক্কেল গুডুম।

কেন কোনও নাগরিকের সংবেদনশীল ও স্পর্শকাতর আধার-তথ্য যে কেউ হাতের মুঠোয় পেয়ে যাবেন? তাহলে সরকারের নিরাপত্তার আশ্বাস কি শুধুই কথার কথা? আধার-তথ্যের গোপনীয়তা যে বিন্দুমাত্র রক্ষা করা হচ্ছে না তার আরও একবার স্পষ্ট হল। খুব সামান্য একটি গুগল সার্চ করেই আপনার কম্পিউটারে খুলে যাবে যে কোনও অপরিচিতের আধার-তথ্য। এরকমই আপনার আধার তথ্য হাতের নাগালে পেয়ে যাচ্ছেন পৃথিবীর অন্য প্রান্তে বসা যে কোনও ব্যক্তি। জাতীয় নিরাপত্তা এবং আপনার ব্যক্তিগত নিরাপত্তার ক্ষেত্রে যা খুবই বিপজ্জনক।

[আধারের সঙ্গে ভোটার কার্ডের সংযুক্তি বাধ্যতামূলক করতে চায় নির্বাচন কমিশন]

সবচেয়ে বড় কথা, কোনও বেআইনি ওয়েবসাইট নয়, বিশ্বের জনপ্রিয়তম সার্চ ইঞ্জিনে খুল্লামখুল্লা মিলছে এই তথ্য। শুধু চারটি শব্দ টাইপ করার অপেক্ষা। Google-এ গিয়ে সার্চ করুন mera aadhaar meri pehchan filetype:pdf। পরপর যে সব পিডিএফ ফাইল খুলবে, তার যে কোনও একটিতে ক্লিক করুন। পেয়ে যাবেন যে কোনও একজনের আধার সংক্রান্ত প্রায় সব তথ্যই। নাম, ঠিকানা, আধার নম্বর, জন্মতারিখ এবং ছবি পেয়ে যেতে পারে যে কেউ। ইন্টারনেটে সবার কাছেই সহজেই হাতের নাগালে যে কোনও কারও আধার-তথ্য। শুধু একটি মাত্র ক্লিকেই।

যে সব ওয়েবসাইট ভারতীয় নাগরিকদের আধার তথ্য আপলোড করেছে তার মধ্যে কয়েকটি হল,
১. Indian National Centre for Ocean Information (ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল সেন্টার ফর ওশেন ইনফরমেশন) -এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.incois.gov.in
২. All India Football Federation (অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশন) -এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.the-aiff.com
৩. Starcards India (স্টার কার্ডস ইন্ডিয়া) নামে একটি বেসরকারি ওয়েবসাইট http:// starcardsindia.com

আশার কথা একটাই এই সব আধার-তথ্যের মধ্যে অবশ্য কোনও নাগরিকের বায়োমেট্রিক তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না। তা পাওয়া গেলে বিপদ আরও বাড়ত। টুইটারেও এই বিষয়টি নিয়ে চর্চা শুরু হয়েছে। আধার তথ্য এভাবে প্রকাশ্যে আনা কী করে সম্ভব? তা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন সবাই। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম থেকে ওই ওয়েবসাইটগুলির অফিসে যোগাযোগ করা হলেও সদুত্তর মেলেনি তারা কেন আধার তথ্য আপলোড করেছে। নানা মহলের প্রশ্ন, এই ভাবে আধার তথ্য ফাঁস করা যদি ইচ্ছাকৃত হয় তাহলে কে কোন উদ্দেশ্যে তা করছে? সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞদের দাবি, কেন্দ্রীয় সরকার এই ঘটনায় দায় এড়াতে পারে না, সে কথাই বলছেন বিশেষজ্ঞরা। কারণ, সরকারই প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল আধার তথ্য ফাঁস হবে না।

[সুপ্রিম নির্দেশে অনির্দিষ্টকালের জন্য বাড়ল আধার সংযুক্তির সময়সীমা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement