১২ আষাঢ়  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আপনার ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দ নিয়ে নানা মজার মজার প্রশ্ন করে ফেসবুক। যার উত্তর দিয়ে অনেকেই তা নিজেদের ভারচুয়াল দেওয়ালে পোস্ট করতেও ভালবাসেন। কিন্তু এবার সেসব মজার ক্যুইজ আর খুঁজে পাওয়া যাবে না জনপ্রিয় এই সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মে। কারণ ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস রুখতে এবার ক্যুইজ বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল ফেসবুক।

[আরও পড়ুন: OMG! ১৯ বছরেই বিকল হয়ে যাবে মোবাইল ও ইন্টারনেট পরিষেবা!]

ফেসবুক থেকে বেআইনিভাবে তথ্য হাতানোর ঘটনায় অভিযুক্ত করা হয়েছিল উপদেষ্টা সংস্থা কেমব্রিজ অ্যানালিটিকাকে। অভিযোগ উঠেছিল মার্কিন মুলুকে নির্বাচনের আগে ট্রাম্পের হয়ে সংস্থাটি ক্যাম্পেন করেছিল। সেই কারণে ফেসবুক থেকে ডেটা চুরি করে তারা। তাদের তথ্য প্রভাবে ফেলে নির্বাচনের প্রচারে। এরপরই বিতর্ক দানা বাঁধে। ফেসবুক থেকে তথ্য চুরির অভিযোগে মার্চ থেকে গ্রাহক হারাতে থাকে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা। সেই ঘটনার পর থেকেই ইউজারদের তথ্য গোপন রাখতে সবরকম ব্যবস্থা নিচ্ছে মার্ক জুকারবার্গের কোম্পানি। প্রায় বছর খানেক পর এবার পার্সোনালিটি ক্যুইজ নিষিদ্ধ করল তারা। শুধু ক্যুইজই নয়, এই প্ল্যাটফর্মে আরও কিছু পরিবর্তন আনছে ফেসবুক। নিজেদের পলিসি আপটেড থেকে শুরু করে কোনও অ্যাপ ব্যবহারের আগে তার রিভিউ সংক্রান্ত বিষয় খুঁটিয়ে দেখা হবে। একটি বিজ্ঞপ্তিতে ফেসবুকের তরফে জানানো হয়, “আমাদের পলিসি আপডেট করা হচ্ছে। সেখানেই নিষিদ্ধ হবে পার্সোনালিটি ক্যুইজেস। তাছাড়া এই প্ল্যাটফর্মে সমস্ত অ্যাপ ব্যবহারে অনুমতিও দেওয়া হবে না।”

এবার থেকে ইউজারদের শুধুমাত্র সেসব প্রশ্নই করা হবে, যা অ্যাপ ব্যবহারে প্রয়োজন হবে। ব্যক্তিগত তথ্য জানতে চাওয়া হবে না। কিন্তু যে অ্যাপগুলিকে ইউজাররা ইতিমধ্যেই অনুমতি দিয়ে রেখেছেন, সেগুলির কী হবে? ফেসবুক জানাচ্ছে, যদি কোনও ব্যবহারকারী ৯০ দিন তা ব্যবহার না করেন, সেক্ষেত্রে সেই অ্যাপের মেয়াদ নিজে থেকেই ফুরিয়ে যাবে।

[আরও পড়ুন: বাজারে আসছে শাওমির আকর্ষণীয় ইলেকট্রিক সাইকেল, দাম জানেন?]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং