৩০ আষাঢ়  ১৪২৬  সোমবার ১৫ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ব্যক্তিগত মতামত, পরামর্শ, তথ্য, প্রতিবাদ- এসবই যুবপ্রজন্ম তুলে ধরতে ভালবাসে নিজেদের ভারচুয়াল ওয়ালে। দেওয়াল লিখনের মধ্যে দিয়ে যে কোনও বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে না পারা মানেই এখন পিছিয়ে পড়া। আর তাই তো ডিজিটাল যুগে অপরিহার্য হয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া। যাদের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ফেসবুক। কিন্তু সমস্যা হল একটাই। ইউজাররা যে সমস্ত তথ্য বা খবর এই সোশ্যাল সাইটে শেয়ার করে, তা অনেক ক্ষেত্রেই ভুয়ো হয়ে থাকে। যা সমাজে বিরূপ প্রতিক্রিয়াও সৃষ্টি করে থাকে অনেক সময়। এমনটা যাতে না হয়, তার জন্য বিশেষ পদক্ষেপ করেছে মার্ক জুকারবার্গের সংস্থা।

[আরও পড়ুন: নেই ফ্রন্ট ক্যামেরা, তাও ঝকঝকে সেলফি উঠবে এই স্মার্টফোনে]

যতদিন যাচ্ছে ততই বাড়ছে ফেসবুক ইউজারের সংখ্যা। আর প্রতিনিয়তই তারা কিছু না কিছু খবর ও তথ্য শেয়ার করে চলেছে নিজেদের ওয়ালে। কোনটি ঠিক আর কোনটি ভুল, তা একজনের পক্ষে নজর রাখা তো সম্ভব নয়। বিশেষ করে লোকসভা নির্বাচনের মরশুমে ভুয়ো খবর ছড়িয়ে পড়ে আরও দ্রুত। সেই কারণেই সমস্ত রকমের ভুয়ো খবর রুখতে একগুচ্ছ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে ফেসবুক। যাতে কোনও ভুয়ো বা উসকানিমূলক খবর ভাইরাল হয়ে সমাজে তা অশান্তি তৈরি না করে। উন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে সমস্ত পোস্টে চালানো হচ্ছে নজরদারি। ফেসবুক যদি মনে করে, কোনও তথ্য বা খবরের সত্যতা নেই, সেক্ষেত্রে সেই পোস্টটি নিজে থেকেই সরিয়ে দিচ্ছে ফেসবুক।

উল্লেখ্য, নির্বাচনের আবহে কোনও রাজনৈতিক দল নিয়ে কোনও ইউজারের ব্যক্তিগত মতামতের পোস্টকেও আলাদাভাবে খতিয়ে দেখছে ফেসবুক। সোশ্যাল মিডিয়ার বিশ্বাস যোগ্যতা বজার রাখার সবরকম চেষ্টা চালাচ্ছে তারা। এবং বলাই বাহুল্য, সে কাজে অনেকটাই সফল এই সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট। তবে সতর্ক থাকতে হবে আপনাকেও। কোনও খবর পোস্ট করার আগে তার সূত্র ও সত্যতা অবশ্যই যাচাই করে নিন।

[আরও পড়ুন: ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত! আমাজনের বিরুদ্ধে পুলিশের দ্বারস্থ ক্ষুব্ধ হিন্দুত্ববাদীরা]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং