২৯ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিনকয়েক আগে ধর্ম নিয়ে মুসলিম ডেলিভারি বয়ের পাশে দাঁড়ানোয় জোম্যাটোর মানবিক রূপ প্রশংসা কুড়িয়েছিল দেশবাসীর। ফের শিরোনামে এই খাবার ডেলিভারি সংস্থা। খাবার নয়, এবার ‘আনন্দ’ ডেলিভারি করল তারা।

বুঝলেন না তো? তাহলে একটু খোলসা করে বলা যাক। বছর চারেকের এক খুদে জোম্যাটোতে খাবারের পরিবর্তে অর্ডার দিয়ে বসেছিল খেলনা। হ্যাঁ, ঠিকই পড়েছেন। খুদের বাবা ইর্শাদ দফতরী সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, “আমার চার বছরের ছেলে ভেবেছিল জোম্যাটোয় নিজের পছন্দের জিনিস অর্ডার করলেই সংস্থা তা ডেলিভারি করবে।” সেই মতো বাবার মোবাইল থেকেই পছন্দের তালিকা করে জোম্যাটোকে পাঠিয়ে দিয়েছিল সে। তালিকায় ছিল নম্বর বেলুন, গাড়ি, উপহার আর খেলনা। কিন্তু খুদের ধারণাই ছিল না, জোম্যাটো কেবলমাত্র মনের মতো খাবারই ক্রেতার কাছে পৌঁছে দেয়। তাহলে কি নিরাশ হতে হল শিশুকে? এখানেই কাহানি মে টুইস্ট।

[আরও পড়ুন: স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আকর্ষণীয় ছাড় ফ্লিপকার্ট ও আমাজনে, জেনে নিন একনজরে]

শিশুর বাবার পোস্টটি মন ছুঁয়ে যায় নেটিজেনদের। টুইটটি জোম্যাটোকে রিটুইট করেন অনেকেই। আর এভাবেই খবর পৌঁছে যায় সংস্থার কাছে। এরপর তারা যা করল, তাতে আরও একবার নেটিজেনদের ভালবাসা পেল সংস্থা। খুদের মুখে হাসি ফোটাতে সত্যি সত্যিই উপহার পাঠাল জোম্যাটো। শিশুর বাবা সে ছবিও পোস্ট করেন। যেখানে একটি গাড়ির সঙ্গে খেলতে দেখা যাচ্ছে তাঁর ছেলেকে। সঙ্গে লেখেন, “ভাল নয়, দুর্দান্ত উপহার দিল জোম্যাটো। আমার ছেলে জীবনের সেরা সারপ্রাইজ পেল। গাড়ি নিয়ে সারা বাড়ি ছোটাছুটি করছে সে। আর ওর আট মাসের বোন ব়্যাপিং পেপার নিয়ে খেলা করছে। চারিদিকে খুশির হাওয়া।”

[আরও পড়ুন: ‘গুগল’ সার্চ ইঞ্জিনে লুকিয়ে জালিয়াতির ফাঁদ, তথ্য জেনে লুঠ দেদার টাকা]

জোম্যাটোর মানবিকতা প্রশংসিত হচ্ছে নেটদুনিয়ায়। অনেকেই জোম্যাটোকে বাহবা দিয়ে আবেগঘন পোস্ট করেছেন। মানুষের প্রতিক্রিয়ায় খুশি সংস্থাও। তারা লেখে, “জুনিয়র সুপার ফুডির মুখে হাসি ফোটানোই আমার উদ্দেশ্য ছিল।”

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং