৪ আশ্বিন  ১৪২৬  রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্করাগ-বেরাগ, হাসি-কান্না, ভাল-মন্দের আজ একটাই বাসা৷ জগত জোড়া এই জালেই আটকে আধুনিক মানুষের জীবন৷ ইন্টারনেট৷ আজ থেকে ঠিক পঁচিশ বছর আগে এই দিনে সাধারণ মানুষের কাছে খুলে গিয়েছিল ভার্চুয়াল জগতের বিশাল দরজা৷ মানুষ জানতে পারল তিন শব্দের মাহাত্ম্য৷ ‘World Wide Web’৷ ইতিহাসের পাতায় সংযুক্ত হয়ে ছিল বর্তমানের ঐতিহাসিক অধ্যায়, ‘ইন্টারনেট’৷

আম জনতার দরবারে নেট দুনিয়ার এই দিনই আজ পালিত হয় ‘ওয়ার্ল্ড ইন্টারনট ডে’ হিসেবে৷ ‘ইন্টারনট’ শব্দটি এসেছে ‘অ্যাস্ট্রোনট’ থেকে৷ মহাকাশে যেমন মহাকাশচারীদের অবাধ বিচরণ, তেমনই নেটদুনিয়ায় ‘ইন্টারনেট’ ব্যবহারকারীদের বিচরণ৷ ভার্চুয়াল জগতে ডুবে থাকা এই বাসিন্দাদেরই বলা হয়ে থাকে ‘ইন্টারনট’৷

1414417842-c9bd77667a90557f36fcd0e9b572a6c9-1366x1031

ইন্টারনেটের এই জন্মদিনের এই অবসরে ফিরে দেখা যাক ডিজিটাল ইতিহাসের টুকরো কিছু মুহূর্ত৷

  • ১৯৮৯ সালে ‘World Wide Web’ অর্থাৎ ‘www’র আবিষ্কার করেছিলেন ইউরোপীয় পারমানবিক গবেষণা সংস্থা CERN-এর গবেষক টিম বার্নার্স-লি৷
  • মানবসভ্যতার জন্য ‘Web’-এর দ্বার খুলে দেওয়া হয় ১৯৯১ সালে৷ ১৯৯৩ সালে ইন্টারনেটকে সবার জন্য বিনামূল্যে ঘোষণা করে CERN৷
  • প্রথম ওয়েবসাইটটি ছিল info.cern.ch৷ যা অপারেট করত CERN টিমই৷ ডিজাইন করেছিলেন রবার্ট নামে এক সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার৷
  • প্রথম ছবিও আপলোড করেছিল CERN৷ Les Horribles Cernettes নামে কোম্পানির হাউস ব্যান্ডের ছবি আপলোড করেছিলেন টিম বার্নাস-লিই৷
  • ১৯৯৪ সালে তিন হাজারেরও কম ওয়েবসাইট ছিল ইন্টারনেটে৷ ২০১৪ সালে এই সংখ্যাটা পৌঁছয় ১০০ কোটিতে৷
  • ২০১৬ সালে পয়লা জুলাই পর্যন্ত হিসেব অনুযায়ী প্রায় ৩.৪ বিলিয়ন মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করে৷ সারা বিশ্বের জনসংখ্যার ৪০ শতাংশ৷

আর সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়েবসাইট? গুগল!

2d4df_GTY_google_search_2_mar_140818_16x9_992

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং