৩০ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

জানেন আপনার প্রতিদিনের জীবনে কী প্রভাব ফেলে রসুন?

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 3, 2018 6:34 pm|    Updated: July 14, 2018 5:21 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আমিষ থেকে নিরামিষ যেকোনও রান্নায় স্বাদ বৃদ্ধিতে রসুন এক এবং অদ্বিতীয়। এমনকি এই রসুনের মধ্যে রয়েছে হাজার হাজার ওষুধের গুণ। তাই গোটা বিশ্বের কাছে রসুন ‘পাওয়ার হাউস অফ মেডিসিন এন্ড ফ্লেভার’ নামে পরিচিত। কিন্তু জানেন কী কী গুণ রয়েছে রসুনের মধ্যে? আর কীভাবে রসুন খেলে আপনিও সেইসব গুণগুলি বুঝতে পারবেন?

রসুন খেতে হলে সেটা কাঁচা বা সেদ্ধ অবস্থায় নিয়মিত খান, তাতেই অনেক রোগের হাত থেকে মুক্তি পাবেন আপনি। রসুনের মধ্যে আছে সালভারভিত্তিক যৌগ অ্যালিসিন, যা অনেক রোগ নিরাময়ে কাজ করে। এছাড়া কাঁচা রসুন চিবিয়ে খেলে শরীরের ব্যাকটেরিয়া ও ফাঙ্গাস প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হয়। অনেকের দাবি, রসুন নিয়মিত খেলে তা ক্যানসার প্রতিরোধে সাহায্য করে। প্রতিদিন সকালে রসুনের দুটি কোয়া এক গ্লাস জল দিয়ে খেয়ে নিন। এতে রক্ত পরিষ্কার হবে এবং ত্বকও ভাল থাকবে। আর শরীরের বাড়তি ওজন কমাতে চাইলেও কিছুটা গরম জলে লেবুর রস দিয়ে রসুনের কোয়ার সঙ্গে খেয়ে দেখতে পারেন।

[আপনার সম্পর্ক ঠিক কতটা পোক্ত? এই ভ্যালেন্টাইনস ডে’র আগেই জানুন]

 

আর আপনার কী প্রায়ই ঠান্ডা ও জ্বর হয়? তবে প্রতিদিন সকালে দু-তিন কোয়া রসুন কাঁচা খেয়ে নেবেন। এছাড়া চায়ের সঙ্গেও রসুন খাওয়া যায়। আর রসুনের গন্ধ খারাপ লাগলে এর সঙ্গে আদা ও মধু মিশিয়ে খাওয়া যায়। এতে ঠান্ডা ও জ্বর শুধু সাময়িক দূর হবে না বরং শরীরে এগুলোর প্রতিরোধক্ষমতাও বাড়বে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, শিশুদের কৃমি দূর করতেও রসুনের নির্যাস ভাল কাজ দেয়। এমনকি রসুনের নির্যাস থেকে অনেক সময় ‘মাউথ ওয়াশ’ তৈরি করা হয়। কারণ এটা নিয়মিত ব্যবহারে করলে মাড়িতে ব্যাকটেরিয়া জাতীয় রোগ হয় না। এছাড়া ফাঙ্গাস ও ব্যাকটেরিয়া থেকে ত্বককে বাঁচাতেও রসুন অপরিহার্য।

[কোন বয়সে বিয়ে করা উচিত? কী বলছে আপনার রাশিফল?]

অনেক বিশেষজ্ঞরা বলেন, রোজ কাঁচা ও রান্না করা রসুন খেলে পাকস্থলী ও কোলন ক্যানসার প্রতিরোধ করা যায়। এমনকি রসুন খেলে নাকি ত্বক মসৃণ হয় এবং বয়সের ছাপ পড়ে না। আবার চুল পড়া রুখতেও রসুন গুরুত্বপূর্ণ। তাই এই জাতীয় সমস্যা থাকলে রসুন বেটে তার রসটা মাথায় লাগান। দেখবেন একদিকে যেমন এতে চুল পড়া বন্ধ হবে, তেমন আবার মাথায় নতুন চুলও গজাবে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement