৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মধ্যরাতে এই শহরে পুতুল হাতে ঘুরে বেড়ায় কে?

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 30, 2016 8:30 pm|    Updated: March 1, 2019 3:45 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভূত ব্যাপারটাই অদ্ভুত! কেউ বিশ্বাস করেন কেউ আবার বিষয়টির গুরুত্ব উপেক্ষা করেন। শোনা যায় অপঘাতে মৃত্যু হলে ভূত হয়। ভূত থাকুক কিংবা না থাকুক, আত্মার উপস্থিতি নিয়ে আজ অবধি কোনও দ্বিমত তৈরি হয়নি। শুধু তাই নয়, শ্রীমদভগবদগীতাতেও বলা হয়েছে আত্মার মৃত্যু নেই। আত্মা অবিনশ্বর। বলা হয়, অপঘাতে মৃত্যু হলে আত্মার মুক্তি হয় না। বিশেষ করে ছোট শিশুর মৃত্যু হলে তারা যেন আরওই মায়া কাটাতে পারে না। পরিবারের মানুষের খোঁজ করতে থাকে! অজান্তেই ভীতির সঞ্চার করে সাধারণের মনে। কখনও দেখা দেয়, কখনও আবার মিলিয়ে যায়। কখনও আবার পিছুডাকে। কখনও আবার হাসে। অজান্তেই তাদের অপেক্ষা অন্যের জীবনে ভীতির সঞ্চার করে।

Chandan-Nagar-400x225

এমনই এক ঘটনা লোকের মুখে মুখে প্রচলিত পুণের চন্দননগর নিয়ে। শোনা যায়, বেশ কয়েক বছর আগে একটি বিল্ডিং কনস্ট্রাকশনে খুন হয়েছিল একটি দশ বছরের মেয়ে। কেন তাকে খুন করা হয়, এতটুকু শিশুকে কারাই বা খুন করল, তা আজও জানা যায়নি। তবে পুণের চন্দননগরে আজও রাত ১২ টার পর সেই দশ বছরের শিশুটিকে দেখা যায়। যাকে খুন করা হয়েছিল ওই বিল্ডিং কনস্ট্রাকশনে।
আজও নাকি রাত ১২ টার পর চন্দননগরের বাসিন্দারা ঘরের দরজা, জানালা বন্ধ করে দেন। বেশি রাতে ঘরের বাইরে যেতে সাহস পান না। বাসিন্দারা বলেছেন, এর অন্যথা হলেই নাকি ঘরের মধ্যেই দেখা মেলে সেই অশরীরীর। হাতে পুতুল, পরনে একটা ফ্রক। অদ্ভুতভাবে একদৃষ্টে তাকিয়ে হাসে সেই অশরীরী।
শোনা যায় বেশি রাতে রাস্তা পারাপারের সময় সেই অশরীরী বালিকা পিছু ডাকে। ঘুরে তাকালেই দেখা মেলে সেই বীভৎস মূর্তির। একদৃষ্টে তাকিয়ে হাসছে।
এতেই শেষ নয়। সেই অশরীরীর ছবি পর্যন্ত দেখতে পাওয়া গিয়েছে! ওই বীভৎস মূর্তি সামনে আসলে প্রাণ বাঁচিয়ে ফিরে আসা দায়!

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement