২১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  রবিবার ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

শাহজাদ হোসেন, ফরাক্কা: মুর্শিদাবাদ জেলার মধ্যে দ্বিতীয় পর্যটন কেন্দ্র হিসাবে আত্মপ্রকাশ করতে চলেছে জঙ্গিপুরের নেতাজি সুভাষ দ্বীপ। ভাগীরথীর তীরে ৬৫ বিঘা জমির ওপর আধুনিক এই পর্যটন কেন্দ্রের কাজ এখন প্রায় শেষের পথে। প্রায় তিন কোটি টাকা ব্যয়ে তৈরি সুভাষ দ্বীপের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন আগামী ২৫ আগস্ট। সেদিন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম ও পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর উপস্থিতিতে জঙ্গিপুর পুরসভার পর্যটন কেন্দ্র হিসাবে আত্মপ্রকাশ করবে সুভাষ দ্বীপ। এখন চলছে শেষ পর্যায়ের প্রস্তুতি।

[ব্যক্তিগত আক্রমণে সায় ছিল না বাজপেয়ীর, স্মৃতিচারণে কৃষ্ণনগরের চূর্ণীলাল দত্তরা]

জঙ্গিপুর সদর ঘাট। ভাগীরথীর তীরে প্রায় ৬৫ বিঘা জমির উপরে জঙ্গিপুর পুরসভা উদ্যোগে তৈরি এই নেতাজি সুভাষ দ্বীপ। যদিও বাম জমানাতেই পিকনিক স্পট হিসেবে পরিচিতি পায়। তবে জঙ্গিপুর পুরসভা তৃণমূল কংগ্রেসের দখলে আসার পর সাজতে শুরু করে সুভাষ দ্বীপ। বলা বাহুল্য, মুর্শিদাবাদে মতিঝিলের পর দ্বিতীয় পর্যটনকেন্দ্র হিসাবে সুভাষ দ্বীপকে গড়ে তোলার পরিকল্পনা রাজ্য সরকারের। এর জন্য অর্থ বরাদ্দ  হয় প্রায় তিন কোটি টাকা। সুভাষ দ্বীপের নামের সার্থকতা রেখে বসানো হয়েছে দেশের বীর সৈনিক নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর আবক্ষ মূর্তি। নতুন করে গড়ে তোলা হয়েছে রাস্তাঘাট। গড়ে তোলা হয়েছে পাখিরালয়। সেখানে রয়েছে রং-বেরংয়ের পাখির সমাহার। সুভাষ দ্বীপে থাকছে আধুনিক কটেজ। ক্যান্টিনের সুবন্দোবস্ত। শিশুদের বিনোদনের জন্য সুভাষ দ্বীপে থাকছে দোলনা, স্লিপ। বসানো হয়েছে ফোয়ারা। দ্বীপ লাগোয়া জলাশয়ে থাকছে বোটিংয়ের সুবন্দোবস্ত।

[মনসাপুজোর মেলা দেখতে গিয়ে মারধর, অপমানে নদীতে ঝাঁপ যুবকের]

এই প্রসঙ্গে জঙ্গিপুর পুরসভার পুরপ্রধান মোজাহারুল ইসলাম জানান, জঙ্গিপুর পুরসভাকে নতুন করে সাজানোর কাজ চলছে। আগামী ২৫ আগস্ট পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম ও পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী জঙ্গিপুরে আসছেন। সেদিন জঙ্গিপুর পুরসভার আধুনিক ভবনের দ্বারোদঘাটন হবে। নতুন ভবনটি ৫০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে তৈরি হয়েছে। সেদিন একই সঙ্গে দুই মন্ত্রীর হাত দিয়ে জঙ্গিপুরের নতুন আকর্ষণ সুভাষ দ্বীপেরও আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং