২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সিকিম বলতেই মনে ভাসে গ্যাংটক, রাবাং লা, পেলিংয়ের ছবি৷ কিন্তু এই জায়গাগুলো আজ পর্যটক সমাগমে ক্লিশে হযে গিয়েছে৷ আমাদের গন্তব্য হোক পশ্চিম সিকিমের এক স্বল্পচেনা জনপদ কালুক৷ অনিন্দ্যসুন্দর এই প্রাকৃতিক পরিবেশে দিন দুয়েক কাটাতে দারুণ লাগবে৷

কী করে যাবেন, কখন যাবেন, কোথায় থাকবেন—

নিউ জলপাইগুড়ি থেকে রিন চেন পংয়ের দূরত্ব ১৫২ কিলোমিটার৷ পুরো গাড়ি ভাড়া করেও যেতে পারেন, অথবা শিলিগুড়ি থেকে শেয়ার জিপে জোরথাং এসে সেখান থেকে রিন চেন পং চলে আসুন৷ রিন চেন পং থেকে কালুকের দূরত্ব মাত্র তিন কিলোমিটার৷ নিউ জলপাইগুড়ি থেকে কালুক আসতে সময় লাগবে সাড়ে চার থেকে পাঁচ ঘণ্টা৷ গ্যাংটক থেকে আসতে সময় লাগবে ঘণ্টা পাঁচেক৷

বর্ষা এবং শীত এড়িয়ে সারা বছরই যাওয়া যেতে পারে কালুক৷ যখনই যান সঙ্গে রাখুন হালকা শীতবস্ত্র৷ থাকার জন্য কালুকে আছে বিভিন্ন বাজেট এবং মানের হোটেল-রিসর্ট৷

kaluk_web

কী দেখবেন—

উত্তঙ্গ পাহাড়, মেঘমুক্ত নীলাকাশের নিচে সবুজের হালকা থেকে গাঢ় ক্যানভাস, জলপ্রপাত আর সবুজ উপত্যকা—এই নিয়ে স্বর্গরাজ্য কালুক৷ এখান থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘার রূপ অসাধারণ৷ কোলাহলহীন নিস্তব্ধ পরিবেশ কালুককে আরও মায়াবী করে তুলেছে৷ কালুকই সিকিমের একমাত্র জনপদ যেখান থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘা-সহ অন্য তুষারাবৃত্ত শৃঙ্গের প্রায় ১৮০ ডিগ্রি দিগন্ত বিস্তৃত রূপ দেখা যায়৷ কালুক যাওয়ার পথে পড়ে অসংখ্য নাম না জানা ছোট ছোট ঝরনা৷ কালুক থেকে ঘুরে আসা যায় তাডং৷ দূরত্ব ২ কিলোমিটার৷ এখান থেকে দেখা যায় কাঞ্চনজঙ্ঘার অসাধারণ রূপ৷ এছাড়াও দেখা যায় রিসাম গুম্ফা৷ হাজারটা সিঁড়ি চড়ে তবে ওঠা যায় এই গুম্ফায়৷ তবে মনে রাখবেন এখানে গাড়ি চলে না, তাই ট্রেকিং করেই আসতে হবে নির্জন এই গুম্ফায়৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং