৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  বুধবার ২২ মে ২০১৯ 

Menu Logo নির্বাচন ‘১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংগ্রাম সিংহ রায়, শিলিগুড়ি: বড়দিনের বড় চমক। পর্যটকদের জন্য সুখবর। এই শীতে একের পর এক নতুন অতিথিদের আগমনে সেজে উঠছে বেঙ্গল সাফারি পার্ক। শিলিগুড়ির এই সাফারি পার্ককে দেশের অন্যতম ‘ট্যুরিজম ডেস্টিনেশন হাব’ হিসাবে তুলে ধরতে কোনও খামতি রাখছে না কর্তৃপক্ষ। হরিণ থেকে শুরু করে ঘরিয়াল, গন্ডার-সবই রয়েছে পার্কে। রয়্যাল বেঙ্গল সাফারিও শুরু হয়েছে এই পার্কে। প্রথমে ভিভান ও স্নেহাশিসকে দিয়ে বেশ কিছুদিন সাফারি চলে। পরে ঘটে শীলার প্রবেশ। আর এবার মঞ্চে আসবে গোটা রয়্যাল পরিবার।

এই বড়দিনে সাফারিতে সপরিবারে দেখা দেবেন বাঘিনী মা শীলা। সঙ্গে থাকবে দুই মেয়ে কিকা ও রিকা। খবর চাউর হতেই দিন গুনতে শুরু করেছেন পর্যটকরা। রাজ্যের বনমন্ত্রী বিনয়কৃষ্ণ বর্মন বলেন, “শীলার দুই মেয়ে  সুস্থ রয়েছে। তাদেরও এবার পরিবেশ চেনার সময় হয়েছে। সেই জন্যই এই সিদ্ধান্ত। সব ঠিক থাকলে পর্যটকরা এই বড়দিনে কিকা ও রিকাকেও দেখতে পারবে।”

কুম্ভমেলায় তাঁবুতেই মিলবে পাঁচতারা হোটেলের সুবিধা, কীভাবে জানেন? ]

দার্জিলিং ও বেঙ্গল সাফারি পার্কের আধিকারিক রাজেন্দ্র জাকার বলেন, “শীলার দুই মেয়ে এখন সম্পূর্ণ সুস্থ। মাঝে সব থেকে ছোট মেয়ে ইকার মৃত্যুর পর তাঁদের এনক্লোজারে ছাড়ার সিদ্ধান্ত পিছিয়ে দেওয়া হয়। ইকার মৃত্যুর পর কড়া নজরদারিতে রাখা হয় বাকি দুই মেয়েকেও। চলতি শীতের মরশুমেই আমরা তাদের দিয়ে সাফারি শুরু করব।” প্রসঙ্গত, ইকার মৃত্যু না হলে আগেই শীলাকে সপরিবারে সাফারিতে দেখা যেত। শীলার তিন মেয়ে কিকা, রিকা ও ইকার মধ্যে সম্প্রতি ইকার মৃত্যু হয়। এই বছরের মে মাসে এই তিন কন্যার জন্ম দেয় শীলা। যদিও বাবা স্নেহাশিসের ঠিকানা এখন আলিপুর চিড়িয়াখানা। তবে কয়েক মাসের মধ্যে তার ফেরত যাওয়ার কথা। এবার ঘাটতি মেটাতে দর্শকদের সামনে আসছে এই দুই কন্যা।

বড়দিনে এসি টয় ট্রেনে ঘুরতে চান? গন্তব্য হোক ইকো পার্ক ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং