BREAKING NEWS

৩২ আষাঢ়  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৬ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

সাধ্যের মধ্যে বিদেশ ভ্রমণ, ঘুরে আসুন ইন্দোনেশিয়ার দু’টি আকর্ষণীয় স্থান

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: February 18, 2019 6:44 pm|    Updated: February 18, 2019 6:44 pm

An Images

আন্দামান বা কাশ্মীর যাওয়ার প্ল্যান করছেন? কিংবা দক্ষিণ ভারতের সবুজঘেরা পাহাড়, নদীতে? দাঁড়ান, খরচটা একটু হিসেব করে নিন। জানেন কি, এসব জায়গায় বেড়ানোর চেয়ে কম খরচে আপনার বিদেশ ভ্রমণ হয়ে যাবে? চমকে গেলেন? অঙ্ক কিন্তু স্পষ্ট বলছে, এটাই সত্যি। কীভাবে? সে হিসেব পরেই না হয় দেব। তার আগে আসুন, আরামে ছুটি কাটানোর জন্য দু,একটা জায়গা বিলিতি জায়গার হদিশ দিচ্ছেন বর্ণিনী মৈত্র চক্রবর্তী

এই মহাদেশেরই দ্বীপরাষ্ট্র – ইন্দোনেশিয়ার লোম্বকব্যানডুং। প্রথমে আসা যাক ব্যানডুং-এ

১.ইন্দোনেশিয়ার উত্তর জাভা অঞ্চলের রাজধানী ব্যানডুং।
২. প্রচুর চা-বাগান দেখা যায় এই অঞ্চলে। বিলাসবহুল হোটেল, রেস্তোরা, ক্যাফে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ব্যানডুংকে বলে ‘প্যারিস অফ জাভা’।
৩. উইকএন্ড ডেস্টিনেশন হিসাবে খুবই জনপ্রিয় ব্যানডুং।
৪. ইন্দোনেশিয়ার মনোরম আবহাওয়া, নানাবিধ খাবারের আয়োজন, খুব সস্তায় ফ্যাশনেবল জামাকাপড়ের পসরা, গল্‌ফ কোর্স, 
৫. এখানকার ‘জিন্‌স স্ট্রিট’ নামে, যা খুবই বিখ্যাত। খুব কম দামে উৎকৃষ্ট জামাকাপড় এখানে পাবেনই।
৬. এছাড়া উত্তরে রয়েছে তাংকুবান পেরাহু আগ্নেয়গিরি, দক্ষিণে পাটেংগাং লেক দেখে নেওয়া যেতে পারে।
৭. অন্যতম আকর্ষণ একটি সংরক্ষিত উদ্যান, যার নাম কাওয়াসান হুতান লিনডাং। পাইন গাছে ঘেরা এই অরণ্য থেকে সমতলের শহরকে অপূর্ব সুন্দর দেখতে লাগে।

bandung2

কীভাবে যাবেন
এখানকার যে কোনও আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ফ্লাইটে সিঙ্গাপুর হয়ে ফ্লাইট পৌঁছয় ব্যানডুং।
কোথায় থাকবেন
অ্যাপার্টমেন্ট, হোম, হোটেলের অপশন প্রচুর। অনলাইন সাইটে দেখে নিজের পছন্দ অনুযায়ী বেছে নিতে পারেন।
কী খাবেন
সি ফুড, অথেনটিক ইন্দোনেশিয়ান পদ।

লোম্বক
১. বালির পূর্বে রয়েছে লোম্বক দ্বীপ। এর পূর্বে রয়েছে ‘অ্যালাস স্ট্রেইট’। একদম সরু একটি জলাশয়, যা লোম্বক আর তার নিকটবর্তী দ্বীপ সুমবাওয়াকে বিচ্ছিন্ন করে।
২.এর মধ্যস্থলে রয়েছে মাউন্ট রিনজানি আগ্নেয়গিরি। ইন্দোনেশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম আগ্নেয়গিরি এটি। সর্বশেষ অগ্ন্যুৎপাত হয়েছে ২০১৬ সালে।
৩. মাউন্ট রিনজানির শিখরে যে ক্রেটার লেকটি রয়েছে, তার নাম ‘সেগারা আনাক’। সেগারা আনাক শব্দের অর্থ সমুদ্রের সন্তান।
৪. এই এলাকার পার্বত্য অঞ্চল মূলত জঙ্গলে ঘেরা, যদিও সমতলে চাষবাস হয়। চাল, সোয়াবিন, কফি, তামাক, তুলো, দারচিনি, ভ্যানিলা ও অন্যান্য আরও নানা কিছুর চাষ হয় এখানে।
৫. লোম্বক স্কুবা ডাইভিং-এর জন্যও বেশ জনপ্রিয়। দক্ষিণ-পশ্চিমে সেকোটং অঞ্চলে এর প্রচলন বেশি।
৬. সাদা বালুচর উপভোগ করতে যেতে হবে কুটা অঞ্চলে। নিকটবর্তী অঞ্চল প্রায়াতে নতুন এয়ারপোর্ট নির্মাণ হওয়ার পর থেকে এই ছোট্ট শহরটি বিখ্যাত হয়েছে।
৭.এখানকার বয়নশিল্প বিশেষত হ্যান্ড উওভেন টেক্সটাইল খুবই জনপ্রিয়।

lombak1
কীভাবে যাবেন
ফ্লাইটে কলকাতা থেকে লোম্বক পৌঁছানো যায়। প্রতি ফ্লাইটেই হল্ট রয়েছে।
কোথায় থাকবেন
রেস্ত অনুযায়ী ছোট-বড় বিলাসবহুল সবরকম থাকার জায়গা রয়েছে। নিরিবিলিতে থাকতে চাইলে কুইন্স ভিলাস-এ থাকতে পারেন।
কী খাবেন
সি ফুড, ইন্দোনেশিয়ান গ্রিলড চিকেন, বিফ সাটেয়, গ্রিলড ফিশ ট্রাই করুন।

এবার খরচের হিসেব। আসলে, ইন্দোনেশিয়ার টাকার দাম আমাদের চেয়ে ঢের ঢের কম। তাই লোম্বক, ব্যানডুং-সহ গোটা দ্বীপদেশটি ঘুরতে ভারতীয় টাকায় খরচ অনেকটাই কম।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement