৭ মাঘ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২১ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বলা হয় চারধাম যাত্রা সম্পন্ন করতে পারলে সারা জীবনের পাপ ধুয়ে যায়। এই চারধাম ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে ভারতের চতুর্দিকে। দ্বারকা, বদ্রিনাথ, পুরীর জগন্নাথ মন্দির ও রামেশ্বরম। কিন্তু এবার হিন্দুদের জন্য তৈরি হল পঞ্চম ধাম। তবে দেশের বাইরে। কম্বোডিয়ায় তৈরি হয়েছে এই পঞ্চম ধাম।

এখন প্রশ্ন উঠতেই পারে দ্বারকা, বদ্রিনাথ, পুরীর জগন্নাথ মন্দির ও রামেশ্বরম- এই চার জায়গার কিছু না কিছু উপাখ্যান ও বিশেষত্ব রয়েছে। কিন্তু কম্বোডিয়ার বিশেষত্ব কী? এই জায়গা তো মূলত বৌদ্ধদের ক্ষেত্র হিসেবে পরিচিত। এমনকী এখানকার ৯৭ শতাংশ মানুষ বৌদ্ধ। কথাটা অসত্য বা অযৌক্তিক নয়। কিন্তু জায়গাটি এবার হিন্দু তীর্থযাত্রীদের কাছেও গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠবে একটাই কারণে। এখানে তৈরি হয়েছে ১৮০ ফিট উঁচু শিবমূর্তি। ধ্যানস্থ শংকরের এই মূর্তি তৈরি করতে খরচ পড়েছে ৫০০ কোটি টাকারও বেশি।

[ আরও পড়ুন: পৌষমেলায় রেকর্ড ভিড়ের আশা, শান্তিনিকেতনে চড়ছে হোটেল-গেস্ট হাউসের ভাড়া ]

আরএসএস নেতা ইন্দ্রেশ কুমার জানিয়েছেন, পূর্ব এশিয়ার প্রতি হিন্দুদের আগ্রহ বাড়বে। ট্রাস্টের প্রধান গুরুজি কুমারন স্বামীও এই কথা সমর্থন করেছেন। তবে শুধু শিবের মূর্তি নয়, ওখানে থাকবে ভগবান গণেশ ও ভগবান বুদ্ধের মূর্তি।

আঙ্করভাটের বিষ্ণু মন্দির থেকে এই জায়গাটির দূরত্ব প্রায় ৩০ কিলোমিটার। মনে করা হচ্ছে, দূরত্ব কম থাকার কারণে যে সব পর্যটক বিষ্ণু মন্দির দেখতে আসবেন, তাঁরা এই স্থানে শিব দর্শনে আসতে পারেন। এছাড়া তীর্থযাত্রী ও শিবের ভক্তদের জন্য এই স্থান গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে। পঞ্চম ধাম যাত্রার তোড়জোড় ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে। প্রথম যাত্রা শুরু হয়েছে নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে।

তবে এই প্রথম যে কোনও উঁচু বিগ্রহ তৈরি হল তা নয়। উত্তরপ্রদেশের গড়ে তোলা হবে ১০০ মিটার উচ্চতার বিশাল রামের মূর্তি। সরযূ নদীর তীরে এই মূর্তি নির্মাণ হবে। এর জন্য যোগী সরকারের ব্যয় হবে ২ হাজার ৯৮৯ কোটি টাকা। 

[ আরও পড়ুন: ডুয়ার্সের একটুকরো স্বর্গ, পর্যটকদের গন্তব্য হতে পারে টুনবাড়ি ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং