১১ ফাল্গুন  ১৪২৬  সোমবার ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দুই সদ্যোজাতর বয়স ১০২ এবং ১০৪। এমনটাই বলছে তাদের সরকারি বার্থ সার্টিফিকেট। আর সেই নথি দেখে চোখ কপালে উঠেছে পরিবারের সদস্যদের ।      

ঘটনাস্থল সেই বিজেপিশাসিত উত্তরপ্রদেশে।যেখানে সরকারি আধিকারিকদের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযোগ উঠছে। কখনও রেশনে দুর্নীতির দায়ে হাতেনাতে ধরা পড়েছে পদস্থ আধিকারিক। কখনও আবার মিড-ডে মিলে কারচুপি করার ভিডিও সামনে এসেছে। তবে এবার যা হয়েছে, তা কার্যত নজিরবিহীন বলেই দাবি করছে সেই রাজ্যের বেরিলির বাসিন্দারা।

[আরও পড়ুন : ‘CAA-NRC করে দেখান’, অমিত শাহকে চ্যালেঞ্জ প্রশান্ত কিশোরের]

কী করে ঘটল এমন অনাসৃষ্টি কাণ্ড ? উত্তরপ্রদেশে বেরিলির এক গ্রামে বার্থ সার্টিফিকেট ইস্যু করার জন্য ঘুষ চেয়েছিলেন সরকারি কর্তারা। কিন্তু ঘুষ দিতে রাজি ছিলেন না দুই সদ্যোজাতর পরিবার। তারপরই বার্থ সার্টিফিকেটে জন্ম সাল ভুল লেখা হয়। এনিয়ে আদালতেরও দ্বারস্থ হয়েছিল ওই দুই পরিবার।গত সপ্তাহে আদালতের তরফে পুলিশে গ্রাম উন্নয়ন আধিকারিক ও প্রধানের বিরুদ্ধে আভিযোগ দায়ের করেছে।

[আরও পড়ুন : জেএনইউ’র সার্ভার রুমে ভাঙচুর করা হয়নি, RTI-এ জানাল বিশ্ববিদ্যালয়]

বেরিলির এক পুলিশ আধিকারিক তেজপাল সিং অভিযোগ জানান, ২০১৬ ও ২০১৮ সালে একই পরিবারের দুই ছেলের জন্ম হয়। বর্তমানে সংকেতের বয়স দু’বছর ও শুভর বয়স চার বছর। দুজনেরই কাকা পবন কুমার বার্থ সার্টিফিকেটের জন্য আবেদন করেছিলেন।অভিযোগ, সেই সার্টিফিকিট ইস্যু করতে গ্রামের উন্নয়ন আধিকারিক সুশীল চন্দ্র অগ্নিহোত্রি ও গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান পবন মিশ্র ৫০০ টাকা ঘুষ চেয়েছিল বলে অভিযোগ। সেই টাকা দিতে না চাওয়ায় বার্থ সার্টিফিকেটে ভুল জন্মতারিখ লিখে দেওয়া হয়। সংকেতের জন্মতারিখ লেখা হয় ১৯১৬ সালের ১৩ জানুয়ারি ও শুভর জন্মতারিখ লেখা হয় ৬ জানুয়ারি ১৯১৮। এরপরই সেই সার্টিফিকিট নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হন পবন কুমার। এরপর চলতি বছরের ১৭ জানুয়ারি আদালতের তরফে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।     

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং