BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

OMG! মাছি তাড়াতে গিয়ে গোটা বাড়িতেই আগুন ধরালেন বৃদ্ধ, তারপর…

Published by: Sayani Sen |    Posted: September 8, 2020 2:44 pm|    Updated: September 8, 2020 2:44 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাছি দেখলে অনেকেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। তাকে বাড়ি থেকে তাড়ানোর জন্য অনেক সময় কত কাণ্ডই না করি আমরা। কিন্তু সেই ক্ষুদ্র মাপের মাছির (Fly) জন্য ঘটল বড়সড় অগ্নিকাণ্ড। পুড়ে ছাই বাড়ির বেশিরভাগ অংশ। আর মাছিটিকে তাড়াতে গিয়ে যিনি এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন ফ্রান্সের বিরাশি বছর বয়সি ওই বৃদ্ধ সামান্য জখমও হয়েছেন।

ঠিক কী ঘটেছিল? ৮২ বছরের ওই বৃদ্ধ বাড়িতে একাই ছিলেন। সেই সময় তাঁর বাড়িতে একটি মাছি ঢুকে যায়। কীভাবে মাছিটাকে তাড়াবেন তা ভাবতে থাকেন তিনি। তাঁর বাড়িতে একটি বৈদ্যুতিন ব়্যাকেটের মতো দেখতে জিনিস ছিল। যা দিয়ে ছোটখাটো পোকামাকড় মারা যায়। তাই তিনি চেষ্টা করেছিলেন ওই জিনিসটিকে ব্যবহার করেই মাছিটিকে তাড়ানোর। কিন্তু আচমকাই তার গ্যাস লিক করতে থাকে। ব্যস! কিছু বুঝে ওঠার আগে আগুনের লেলিহান শিখা তাঁর বাড়িটিকে গ্রাস করে। পোকা প্রাণের দায়ে ততক্ষণে ঘরছাড়া। কিন্তু কিছুক্ষণের জন্য আটকে পড়েন ওই বৃদ্ধ। তারপর কোনওক্রমে রক্ষা পান তিনি।

[আরও পড়ুন: প্রিয় PUBG’র ‘মৃত্যু’তে শ্মশানযাত্রার আয়োজন একদল যুবকের, ভাইরাল ভিডিও]

তবে ওই পরিস্থিতি থেকে বেঁচে ফিরে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। অসুস্থ হয়ে যান তিনি। তড়িঘড়ি তাঁকে স্থানীয় একটি হাসপাতালেই ভরতি করা হয়। অগ্নিকাণ্ডে শুধুমাত্র হাতটি পুড়ে গিয়েছে তাঁর। এছাড়াও মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন বৃদ্ধ। চিকিৎসার জন্য ঘটনার পর বেশ কিছুক্ষণ ওই হাসপাতালে ভরতি ছিলেন তিনি। তবে চিকিৎসার পর বর্তমানে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ওই বৃদ্ধকে। এদিকে, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পর তাঁর বাড়ি আর বাসযোগ্য নেই। তাই অন্য একটি হোটেলেই বসবাস করছেন তিনি। তাঁর পরিজনেরা পুনরায় বাড়ি সংস্কারের কাজ করছেন।

এই ঘটনা বর্তমানে নেটদুনিয়ায় ভাইরাল। কারও বাসস্থান পুড়ে যাওয়ার ঘটনা দুঃখজনক হলেও বৃদ্ধের কীর্তিতে হেসে খুন অনেকেই। এ কাজও একজন ব্যক্তি করতে পারেন, সেই প্রশ্ন তুলছেন কেউ কেউ। তবে এই প্রথম নয়। এর আগে ২০১৮ সালে ক্যালিফোর্নিয়ায় ঠিক এমনই কাণ্ড ঘটিয়েছিলেন এক ব্যক্তি।

[আরও পড়ুন: মন টেনেছে কৃষিকাজ, বিদেশে মোটা বেতনের চাকরি হেলায় ছেড়ে দেশে ফিরলেন এই ব্যক্তি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement