BREAKING NEWS

০৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  সোমবার ২৩ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

OMG! অনলাইন শপিংয়ে খাবার অর্ডার করে বাড়িতে এল কুমির!

Published by: Sayani Sen |    Posted: August 17, 2018 8:09 pm|    Updated: August 17, 2018 8:09 pm

China: Woman finds dead crocodile inside parcel

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অনলাইন শপিংয়ে প্রতারিতদের সংখ্যা কম নয়৷ অর্ডার অনুযায়ী জিনিসপত্র আসে না বলেই অভিযোগ অনেকের৷ কখনও মোবাইল বা অন্যান্য বৈদ্যুতিন জিনিসপত্রের বদলে হাতে এসে পৌঁছায় সাবান বা ইট৷ এই অভিযোগও উঠেছে বারবার৷ কিন্তু চিনের ছোট্ট এক শহরের বাসিন্দা অনলাইন শপিং করতে গিয়ে যে অভিজ্ঞতার সাক্ষী হলেন, তা সত্যিই অদ্ভুত৷ আগে অনলাইন শপিং করতে গিয়ে এমন অভিজ্ঞতা কারও হয়েছে কি না সন্দেহ৷

[১৯৫টি শহরের নাম, শেক্সপিয়রের কবিতা অনর্গল বলতে পারে এই বিস্ময় বালিকা!]

চিনের সুইচ্যাংয়ের দীর্ঘদিনের বাসিন্দা জ্যাং৷ নিজের পরিবারের জন্য অনলাইনে খাবারের অর্ডার দিয়েছিলেন তিনি৷ সময় মতো একজন ডেলিভারি বয় বাড়িতেও আসে তাঁর৷ টাকার পরিবর্তে পরিপূরক খাবারের চারটি বাক্স ওই মহিলার বাড়িতে দিয়ে যান তিনি৷ কিছুক্ষণের মধ্যেই একের পর এক বাক্স খুলে অর্ডার অনুযায়ী খাবার পেয়েছেন কি না, তা দেখতে শুরু করেন ওই মহিলা৷ তিনটি বাক্স খুলে তাঁর প্রয়োজনীয় পরিপূরক খাবারই পান৷ কিন্তু চতুর্থ বাক্স খুলেই অবাক হয়ে যান মহিলা৷ পরিপূরক খাবারের বদলে এটা কী? তাজ্জব হয়ে যান তিনি৷ মহিলা দেখেন, চতুর্থ বাক্সের মধ্যে গুটিশুটি দিয়ে শুয়ে রয়েছে একটি কুমির! ওই কুমিরটিকে দিব্যি সুন্দরভাবে মুড়ে রাখা হয়েছিল বাক্সের ভিতর৷ নাড়াচাড়া করে তিনি বুঝতে পারেন বাক্সের ভিতরে থাকা ওই কুমিরটি আসলে মৃত৷ সেই বাক্সের ভিতর থেকে দুর্গন্ধও বেরচ্ছিল৷

[অবাক কাণ্ড! অসুস্থ মালকিনকে অ্যাম্বুল্যান্সে হাসপাতাল নিয়ে গেল সারমেয়]

কুমিরটির একটি ভিডিও করেন ওই মহিলা৷ তা নিজের সোশ্যাল অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেন৷ মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায় ভিডিওটি৷ অনলাইন শপিং সংস্থার এমন কারসাজিতে সোশ্যাল সাইটে উঠেছে সমালোচনার ঝড়৷ নেটিজেনরা রীতিমতো ক্ষুব্ধ৷ ওই অনলাইন শপিং সংস্থার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত বলেই দাবি করেছেন তাঁরা৷ অনলাইন শপিং সংস্থার বিরুদ্ধে বেজায় চটেছেন প্রতারিত মহিলা ও তাঁর স্বামীও৷ এভাবে ওই সংস্থা দম্পতির সঙ্গে প্রতারণা করেছে বলেও দাবি তাঁদের৷ থানায় অভিযোগও দায়ের করেছেন দম্পতি৷ অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ওই বাক্সটি উদ্ধার করে৷ অনলাইন সংস্থার পাঠানো চতুর্থ ওই কুমিরের বাক্স থেকে একটি কিউ আর কোডও পেয়েছেন পুলিশ আধিকারিকরা৷ চিনে বাড়িতে বাড়িতে কুমির রাখা আইনসিদ্ধ৷ অনলাইন সংস্থার দাবি, ভুল করেই অন্য ঠিকানার পরিবর্তে ওই মহিলার কাছে কুমির চলে আসে৷ বাক্সে ঢোকানোর আগে পর্যন্ত কুমিরটি বেঁচে ছিল বলেও দাবি সংস্থার৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে