BREAKING NEWS

১৯ শ্রাবণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ৫ আগস্ট ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

প্রেমের বন্ধন! একে অপরকে দীর্ঘসময় হাতকড়ায় বেঁধে রেকর্ড যুগলের, তারপর?

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: June 18, 2021 5:05 pm|    Updated: June 18, 2021 5:05 pm

Couple, who handcuffed themselves to test love, untie after 123 days - and break up immediately | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যে কোনও মুহূর্তে ভেঙে যেতে পারে সম্পর্ক। আজকাল এমনই এক ভয়েই দিন কাটান বেশিরভাগ যুগল! সম্পর্কে বিশ্বাসের অভাব সর্বত্রই যেন চোখে পড়ে। কিন্তু কথায় আছে ভালবাসা থাকলে সব সম্ভব। আর তাই নিজেদের ভালবাসার পরীক্ষা করে নিতে চেয়েছিলেন ইউক্রেনের (Ukraine) এক যুগল। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে একটানা ১২৩ দিন একসঙ্গে থাকার পণও করেছিলেন। দেখতে চেয়েছিলেন, তাঁরা একসঙ্গে জীবন কাটাতে পারেন কি না! সেজন্য দুজনের হাত বাঁধা হয়েছিল একই হাতকড়ায়। যদিও শেষরক্ষা আর হল না। পণ যেদিন ভাঙা কথা সেদিন হাতকড়া খুলতেই দুজনে আলাদা হওয়ার কথা জানান। হ্যাঁ, শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। যা জানার পর তাঁদের ফলোয়ারদেরও মন খারাপ। যদিও নিজেদের সিদ্ধান্তের স্বপক্ষে যুক্তিও দিয়েছেন ওই যুগল।

জানা গিয়েছে, ভিক্টোরিয়া পুসতোভিতোভা (২৯) এবং আলেকজান্ডার কাডলে (৩৩) দুজনেই খারকিভের বাসিন্দা। চলতি বছর ভ্যালেন্টাইনস ডে-তে কিয়েভের ইউনিটি মনুমেন্টের সামনে দুজনে একসঙ্গে থাকার পণ করে হাতকড়টি পরেন। ঠিক করেন ১২৩ দিন একসঙ্গে থাকবেন। অর্থাৎ স্নান-খাওয়া, রান্না, যেকোনও কাজ একসঙ্গেই করবেন। পরীক্ষা নেবেন নিজেদের ভালবাসার। তাঁদের এই পদক্ষেপের খবর সামনে আসতেই রীতিমতো সেলিব্রিটি বনে যান তাঁরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় হু হু করে ফলোয়ারও বাড়তে থাকে। ১২৩ দিন পর ওই যুগল কী পদক্ষেপ করেন? সেই নিয়েও অনেকে উৎসুক হতে থাকেন।

[আরও পড়ুন: OMG! করোনা কালে গঙ্গায় একনাগাড়ে সাড়ে ১১০০০ বার ডুব দিয়ে রেকর্ড হাওড়ার যুবকের]

যদিও শেষপর্যন্ত আশাহতই হতে হল ভিক্টোরিয়া এবং আলেকজান্ডারের ভক্তদের। জানা গিয়েছে, কিয়েভের ওই ইউনিটি মনুমেন্টের সামনেই বড় কাটার দিয়ে দুজনের হাতের বাঁধন খোলা হয়। আর সেটা করতেই আনন্দে আত্মহারা হয়ে যান ভিক্টোরিয়া। এরপর ওই যুবক-যুবতী দু’জনেই জানান, তাঁরা আর একসঙ্গে থাকবেন না। বিচ্ছেদ হচ্ছে তাঁদের। ভিক্টোরিয়া এক সাক্ষাৎকারে জানান, “আমি স্বাধীন জীবনযাপনই করতেই চাই। একজন স্বাধীন মানুষ হিসেবেই এগিয়ে যেতে চাই। শেষপর্যন্ত বন্ধন মুক্ত হয়ে ভালই লাগছে।”

অন্যদিকে, ওই আলেকজান্ডার নামে ওই যুবক নিজেদের ভক্তদের পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ জানান। পাশাপাশি ভিক্টোরিয়ার সিদ্ধান্তকেও সমর্থন করে বলেন, “আমাদের সমর্থন করার জন্য প্রত্যেককে ধন্যবাদ। আমরা এখন একে-অপরের থেকে অনেকটাই দূরে থাকি। ভিকা নিজের আগের জীবনে ফিরে যেতে চাইছিল। আমরা চেষ্টা করতাম যাতে মনমালিন্য বা ঝগড়া না হয়। কিন্তু শেষপর্যন্ত বিবাদে জড়িয়েই পড়তাম। একজনের কোনও অভ্যাস অনেকসময়ই আরেকজনের পছন্দ হত না। যদিও এখন আমরা দুজনেই খুব খুশিতে রয়েছি। আর এই অভিজ্ঞতাটাও আমাদের জন্য খুবই ভাল ছিল।” যদিও ওই যুগল এই সিদ্ধান্তে খুশি হলেও তাঁদের ভক্তদেরই কার্যত মন খারাপ।

[আরও পড়ুন: এ যেন ঈশ্বরপ্রাপ্তি! লকডাউনের পর মদের বোতল হাতে পেয়েই পুজো শুরু করে দিল মদ্যপ, ভাইরাল ভিডিও]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement