BREAKING NEWS

২৭ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

নদীর কুমির পুকুরে! যথাস্থানে ফেরত পাঠাতে হিমশিম পাথরপ্রতিমার বনকর্মীরা

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: July 19, 2019 4:32 pm|    Updated: July 19, 2019 5:05 pm

An Images

সুরজিৎ দেব, ডায়মন্ড হারবার: পুকুরে আস্ত একটা কুমির! দেখামাত্রই আতঙ্ক ছড়িয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার পাথরপ্রতিমায়। শুক্রবার সকালে কুমিরটিকে সুন্দরবন লাগোয়া খাঁড়িতে ছেড়ে দেন বনদপ্তরের কর্মীরা।

[আরও পড়ুন: পুলিশকর্মীর সঙ্গে পরকীয়া, প্রেমিকের সঙ্গে স্ত্রীর বিয়ে দিয়ে দিলেন যুবক]

পাথরপ্রতিমার ব্লকের কুয়েমুড়ি গ্রামের একেবারেই পাশ দিয়ে বয়ে গিয়েছে মুনি নদী। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, বৃহস্পতিবার আচমকাই মুনি নদীর বাঁধে উঠে পড়ে একটি বড়সড় কুমির। তার দৈর্ঘ্য প্রায় আট ফুট৷ বিকেলে ছাগলের চিৎকার শুনে যখন এলাকার একটি পুকুরের পাড়ে জড়ো হন, তখন দেখেন, ছাগলটিকে কামড়ে ধরে পুকুর নামার চেষ্টা করছে একটি কুমির৷ শোরগোল পড়ে যায় এলাকায়। তবে লোকজনের চিৎকারে শেষপর্যন্ত অবশ্য প্রাণে বেঁচে যায় ছাগলটি।

এদিকে ততক্ষণে কুমিরটিও পুকুরের জলে গা-ঢাকা দিয়েছে। কিন্তু ঘটনার পর বেশ কিছুক্ষণ কুমিরটিকে আর পুকুরেও দেখা যায়নি বলে দাবি করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁরা ভেবেছিলেন, লোকালয় থেকে নদীতেই ফিরে গিয়েছে সরীসৃপটি। কিন্তু ভুল ভাঙে সন্ধ্যায়।স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার ঠিক মুখে ওই পুকুরে স্নান করতে নেমেছিলেন এক গৃহবধূ। তিনি দেখেন, পুকুরের জলে ভাসছে প্রমাণ সাইজের একটি কুমির। ওই গৃহবধূর চিৎকারে রীতিমতো লাঠি-ঢিল নিয়ে ছুটে আসেন আশেপাশের লোকজন। খবর পাঠানো হয় বনদপ্তরের রায়দিঘি রেঞ্জ অফিসে।

[আরও পড়ুন: ‘নির্লজ্জের মতো কেন চেয়ার আঁকড়ে আছেন?’, শংকর আঢ্যকে তীব্র ভর্ৎসনা বিচারপতির]

কিন্তু পুকুরে জাল ফেলে কুমিরটিকে ধরতে গিয়ে হিমশিম খেতে হয় বনকর্মীদের। বহু চেষ্টার পর সফল হন তাঁরা। প্রাথমিক চিকিৎসার শুক্রবার সকালে কুমিরটিকে সুন্দরবন লাগোয়া  ধূলিভাসানীর জঙ্গলে ছেড়ে দিয়েছেন বনদপ্তরের কর্মীরা। এদিকে এই ঘটনায় আতঙ্কিত পাথরপ্রতিমার কুয়েমুড়ি গ্রামের বাসিন্দারা। রাতের অন্ধকারে কুমিরটি এলাকার কাউকে টেনে নিয়ে গেলে কী হত! ভেবেই শিউরে উঠছেন তাঁরা।

দেখুন ভিডিও:

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement