১৪ চৈত্র  ১৪২৬  শনিবার ২৮ মার্চ ২০২০ 

Advertisement

প্রেমদিবসে মিলনে মরিয়া, সাফারি পার্কের ফেন্সিং ভেঙে কুনকির কাছে ছুটে গেল দাঁতাল

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: February 15, 2020 3:00 pm|    Updated: February 15, 2020 3:40 pm

An Images

শুভদীপ রায়নন্দী, শিলিগুড়ি: ‘ভ্যালেন্টাইন্স ডে’তে সঙ্গিনীর সঙ্গে মিলনে উন্মুখ হয়ে ফেন্সিং ভেঙে ঢুকে পড়ল একটি দাঁতাল। আর তার জেরেই বিপত্তি ঘটে গেল শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারি পার্কে। প্রেমের টানে গজরাজের এই আগমন যদিও সঙ্গে সঙ্গে সাফারি পার্ক কর্তৃপক্ষের চোখে পড়ায় তৎপরতার সঙ্গে তাঁরা হাতিটিকে ফেরত পাঠানোর কাজে নামেন। চারটি মনিটরিং ভ্যানের সাহায্যে তাকে জঙ্গল থেকে বের করে পাঠানো হয় বৈকুণ্ঠপুরের জঙ্গলে। মেরামত করতে হয়েছে তার ভেঙে ফেলা ফেন্সিংও।

ঘটনা শুক্রবার সকালের। সাড়ে আটটা নাগাদ মহানন্দা অভয়ারণ্যের দিক থেকে নদী পেরিয়ে সাফারি পার্কের দুটি ফেন্সিং ছিঁড়ে ভিতরে ঢুকে পড়ে দৈত্যাকার গজরাজ। সেখানে লক্ষ্মী এবং উর্মিলা নামে দুটি কুনকি হাতি রয়েছে। দু’জনেই প্রাপ্ত বয়স্ক এবং প্রসবের জন্য প্রস্তুত। ওই দুই কুনকির সঙ্গে মিলনের জন্যই দাঁতালটি ফেনসিং ছিড়ে সাফারিতে ঢুকে পড়ে বলে মনে করছেন পার্ক কর্তৃপক্ষের একাংশ। আবার আরেকাংশের মতে, মিলনের জন্য নয়, স্রেফ দলছুট হয়ে ওই দাঁতালটি খাবারের খোঁজে ফেন্সিং ছিড়ে সাফারি পার্কে ঢুকে পড়েছে। যদিও ওই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি সাফারি পার্কের আধিকারিকরা। হাতির আঘাতে ভেঙে যাওয়া ফেন্সিং মেরামতের কাজ শুরু হয়েছে।

[আরও পড়ুন: মালকিনের স্তন ক্যানসার শনাক্ত করল ২ সারমেয়, কীভাবে জানেন?]

সাফারি পার্ক সূত্রে খবর, পার্কে হাতি সাফারির শুরু থেকেই রয়েছে দুই কুনকি – লক্ষ্মী এবং উর্মিলা। দু’জনকে গরুমারা থেকে পর্যটকদের জন্য নিয়ে আসা হয়েছিল। সেসময় মিলনের জন্য প্রস্তুত না হলেও এখন দু’জনেই তৈরি। জানা গিয়েছে, স্ত্রী হাতি মিলনের জন্য প্রস্তুত হলে পুরুষ হাতিকে আকৃষ্ট করতে খুব কম কম্পাঙ্কে ডাক দেয়, যা সাধারণ মানুষ কানে শুনতে পান না। এছাড়াও ওই কম কম্পাঙ্কের ডাক-সহ প্রজননের জন্য প্রস্তুত স্ত্রী হাতির মূত্র এবং গায়ের গন্ধ ৮ থেকে ১০ কিলোমিটার দূর থেকেও টের পেয়ে যায় পুরুষ হাতি। আর একবার সেই ডাক বা গন্ধ পেলে পুরুষ হাতি আর কোনও বাধাই মানে না। সঙ্গিনীর কাছে পৌঁছতে চায়। এই ক্ষেত্রেও সেই ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞদের। সোসাইটি ফর অ্যানিম্যাল অ্যান্ড নেচার প্রোটেকশনের সম্পাদক কৌস্তভ চৌধুরি বলেন, “লক্ষ্মী এবং উর্মিলা প্রজননের জন্য তৈরি। তাঁদের ডাক এবং গন্ধে প্রজননের টানে ফেন্সিং ছিঁড়ে ওই পুরুষ হাতির সাফারিতে ঢুকে পড়া অস্বাভাবিক কিছু নয়।”

[আরও পড়ুন: ‘৬ বছর নষ্ট করলে কেন?’ প্রেমদিবসে প্ল্যাকার্ড নিয়ে শ্বশুরবাড়ির সামনে ধরনায় যুবক]

এই ঘটনায় রাজ্যের বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “ঘটনাটি শুনেছি। আমি বিষয়টি কী করে হল, তা জানতে চেয়েছি।” বেঙ্গল সাফারি পার্কের রেঞ্জার দীপক রসেইলির কথায়, “এদিন সকালে একটি দাঁতাল ফেন্সিং ভেঙে সাফারিতে ঢুকে পরে। এক ঘন্টার চেষ্টায় সেটিকে বৈকুন্ঠপুর জঙ্গলে বের করে দেওয়া হয়। ক্ষতি হওয়া ফেন্সিং মেরামত করা হয়েছে। আতঙ্কের কিছু নেই।” তবে ঘটনা ঘিরে সাফারি পার্কে পর্যটকদের নিরাপত্তা আরও নিশ্চিত করার দাবি উঠেছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement