২৮ কার্তিক  ১৪২৬  শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২৮ কার্তিক  ১৪২৬  শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘রেহনা তু পল পল দিল কে পাস’। নানা অঙ্গভঙ্গি করে এই হিন্দি গানটিই গাইছেন মা কালী! হ্যাঁ, ঠিকই পড়েছেন। দিওয়ালি স্পেশ্যাল এই ভিডিও এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। কিন্তু এ ভিডিওকে একেবারেই ভাল মনে নেননি নেটিজেনরা। বিষয়টি নিয়ে রীতিমতো নিন্দার ঝড় উঠেছে।

যুবপ্রজন্মের কাছে টিকটক অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি অ্যাপ। জনপ্রিয় সব গান সহযোগে হামেশাই সেখানে কিছু না কিছু ভিডিও রেকর্ড করেন ইউজাররা। অনেকে আবার সিনেমার সংলাপও বলেন। মোট কথা, নিজেদের মনোরঞ্জনের জন্য যা যা ইচ্ছা হয়, সেসবই এই অ্যাপের মাধ্যমে তৈরি করে ফেলেন ব্যবহারকারীরা। তবে মাস কয়েক আগে এদেশে এই অ্যাপটির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছিল। অভিযোগ উঠেছিল, হিংসাত্মক ও অশালীন ভিডিও সমাজে ছড়িয়ে পড়ছে টিকটকের মাধ্যমে। অল্পবয়সিদের উপর যার কুপ্রভাব পড়ছে। যদিও টিকটক জানায়, আগামিদিনে তারা এর কনটেন্টের বিষয়ে বিশেষ নজর রাখবে। বিতর্কিত কোনও ভিডিও সেখানে থাকবে না। কোম্পানির অনুরোধে পরবর্তীকালে ফের চালু হয় অ্যাপটি। আর দিন কয়েকের মধ্যেই তা ফের আগের মতোই জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। কিন্তু ফের বিতর্কের মুখে টিকটক। এবার যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে, তা অনেকেই মেনে নিতে পারছেন না।

[আরও পড়ুন: পাকস্থলীর ভিতরে তৈরি হচ্ছে বিয়ার! মদ না খেয়েও মাতাল ব্যক্তি]

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একদিকে একটি যুবতী ‘রেহনা তু পল পল দিল কে পাস’ গানে গলা মেলাচ্ছেন। আর অন্যদিকে সেই যুবতীই গলায় জবাফুলের মালা পরে শ্যামা মা সেজে একই গান গাইছেন। এমন ভিডিওয় বেজায় চটেছেন হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা। অনেকেই ভিডিওটির নিন্দা করে লিখেছেন, সবকিছুর একটা সীমা থাকা উচিত। যা ইচ্ছে তাই করলেই মেনে নেওয়া যায় না। অনেকের দাবি, এমন ভিডিও হিন্দুদের ভাবাবেগে আঘাত করেছে। অনেকে আবার ভিডিওটি মুছে ফেলার দাবিও তুলেছেন। যদিও হাজার বিতর্কের পরও নেটদুনিয়ায় জ্বলজ্বল করছে মা কালীর টিকটক ভিডিও।

[আরও পড়ুন: কেউ পিঠে চড়লেই মৃত্যু হয় এই ঘোড়ার! ভাইরাল ভিডিওয় অবাক নেটদুনিয়া]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং