১ শ্রাবণ  ১৪২৬  বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হাসপাতাল মানেই এত এত ওষুধ, পরীক্ষা-নিরীক্ষা। কিন্তু শুনেছেন কখনও হাসপাতালে পৌঁছাতেই আগে খতিয়ে দেখা হয় রোগীর কুষ্ঠি? তারপরই শুরু হয় যাবতীয় চিকিৎসা, বিভিন্ন ডাক্তারি পরীক্ষা-নিরীক্ষা। অবিশ্বাস্য হলেও এমনটাই হয় রাজস্থানের জয়পুরের ইউনিক সংগীতা মেমোরিয়াল হাসপাতালে। 

[আরও পড়ুনOMG! ৬ লক্ষেরও বেশি টাকা দিয়ে একফালি ঘাসজমি কিনলেন ব্যক্তি]

রাজস্থানের জয়পুরের বৈশালী নগরে রয়েছে ইউনিক সংগীতা মেমোরিয়াল। জানা গিয়েছে, চিকিৎসক, নার্সের পাশাপাশি হাসপাতালে রয়েছেন একজন জ্যোতিষী৷ তাঁর নাম অখিলেশ শর্মা। যে কোনও রোগী ওই হাসপাতালে গেলে প্রথমেই জেনে নেওয়া হয় তাঁর জন্ম তারিখ ও সময়। সেই তথ্যের ভিত্তিতে রোগীর কুণ্ডলী তৈরি করেন অখিলেশবাবু। প্রাথমিকভাবে তিনিই ধারণা বলেন, কী হয়েছে ওই রোগীর। এরপর প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর শুরু হয় চিকিৎসা। 

হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, “আমরা চিকিৎসা বিজ্ঞানেও জ্যোতিষবিদ্যাকে ব্যবহার করতে চাইছি। কারণ, ভারতীয় সংস্কৃতিতে জ্যোতিষ শাস্ত্রের এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে।” হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, জয়পুরের ওই হাসপাতালে এখনও পর্যন্ত যত রোগী গিয়েছেন, প্রত্যেকের কুষ্ঠি বিচার করে অখিলেশবাবু যা বলেছেন শারীরিক পরীক্ষার পর একই সমস্যা ধরা পড়েছে। 

       [আরও পড়ুনজামা টেনে নদী থেকে ছোট্ট মেয়েকে বাঁচাল সারমেয়, ভাইরাল ভিডিও]

জানা গিয়েছে, বর্তমানে ওই হাসপাতালে মোট ২২ জন কর্মী রয়েছেন, তাঁর মধ্যে ৫ জন চিকিৎসক। ২২ জন কর্মীরই একজন অখিলেশবাবু। তাঁর কথায়,‘‘আমরা কী হয়েছে সেটা বোঝার জন্য জ্যোতিষশাস্ত্র ব্যবহার করলেও, চিকিৎসার জন্য বিজ্ঞানের সাহায্য নেওয়া হয়৷’’ 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং