BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৪ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

হোক করোনা, তবু বিরিয়ানি চাই! দোকানের সামনে দেড় কিমি লম্বা লাইন ভোজনরসিকদের

Published by: Suparna Majumder |    Posted: October 11, 2020 5:18 pm|    Updated: October 11, 2020 5:18 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “লোভে পাপ পাপে মৃত্যু”। গুরুজনেরা তেমনটাই বলে গিয়েছে। তা বলে কি ধোঁয়া ওঠা বিরিয়ানির লোভ ছাড়া যায়! থাক না করোনার (CoronaVirus) আতঙ্ক। অত পরোয়া করার কী আছে! লম্বা চালের সুগন্ধ, নরম তুলোর মতো মাংসের লোভ কি ত্যাগ করা যায়? জিভের চরম সুখই তো শেষ কথা। এমনটাই বোধহয় মনে করেন কর্ণাটকের (Karnataka) কিছু বাসিন্দা। শুধুমাত্র বিরিয়ানি (Biryani) খাওয়ার লোভে যাঁরা করোনা (COVID-19) সংকট উপেক্ষা করেই রাস্তায় নেমে পড়েছিলেন। ভোর রাত থেকে লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন শুধুমাত্র এক প্লেট বিরিয়ানি পাওয়ার লোভে। সকাল হতে না হতেই দেড় কিলোমিটার লম্বা লাইন পড়ে গিয়েছিল হোসকোটে বিরিয়ানির দোকানে। ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিও।

[আরও পড়ুন: মন্ত্র পড়ে, লোক খাইয়ে নিজেরই শ্রাদ্ধানুষ্ঠান করলেন তান্ত্রিক, এরপর…]

বেঙ্গালুরু (Bengaluru) সিটি সেন্টার থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই দোকানটি ২২ বছর আগে খোলা হয়েছিল। হোসকোটের (Hoskote) এই বিরিয়ানির লোভে দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসেন বহু মানুষ। করোনা কালেও তাতে ব্যতিক্রম হয়নি। সাতসকালেই বিক্রি হয়ে যায় সমস্ত বিরিয়ানি। কোনও কিছু অবশিষ্ট থাকে না। রবিবার ভোর চারটে থেকে লাইন দিয়েছিলেন এক ব্যক্তি। সকাল সাড়ে ছ’টায় বিরিয়ানি পান। অথচ এতটুকু বিরক্তি প্রকাশ না করে জানান, এই বিরিয়ানির জন্য তাঁর সমস্ত অপেক্ষা সার্থক।

করোনা কালে এভাবে লাইন দিয়ে বিরিয়ানি কেনা নিয়ে নেটদুনিয়ায় মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। কেউ কেউ বিরিয়ানির প্রশংসা করেছেন, তবে বেশিরভাগই করোনা কালে এভাবে লোভের ফাঁদে পা দেওয়ার জন্য ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। ব্যঙ্গ করে কেউ লিখেছেন, “বিরিয়ানির সঙ্গে করোনা ফ্রি”, কেউ আবার কৌতুকের ছলে দাবি জানিয়েছেন ‘বিরিয়ানিকে গ্রেপ্তার করা হোক’।  

[আরও পড়ুন: প্রতি বছর কুমারী মেয়ে বিয়ে করেন আফ্রিকার এই দেশের রাজা, জানেন কেন?]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement