BREAKING NEWS

১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সে কী!‌ দিনে কুড়িটি রুটি খায়, তা সত্ত্বেও ১৮ মাস শৌচাগারে যায় না এই কিশোর

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: November 21, 2020 10:45 pm|    Updated: November 21, 2020 10:45 pm

Madhya Pradesh: 16-year-old boy did not went to toilet since 18 months | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ একদিন বা দু’‌দিন নয়। একটানা ১৮ মাস শৌচাগারে যায় না ১৬ বছর বয়সি মধ্যপ্রদেশের (Madhya Pradesh) এক কিশোর। না, সে না খেয়ে থাকে না। বরং দিনে ১৮ থেকে ২০টি রুটি খেয়ে ফেলে। তা সত্ত্বেও শৌচাগারে যায় না!‌ শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি।

আশিস চান্ডিল নামে ওই কিশোরের অদ্ভুত এই রোগের কথা জানতে পেরে অবাক বাড়ির লোকও। ইতিমধ্যেই দুশ্চিন্তায় চিকিৎসকদের পরামর্শও নিয়েছেন তাঁরা। কিন্তু তাতেও সুরাহা মেলেনি।  জানা গিয়েছে, মধ্যপ্রদেশের মোরেনা জেলার পুরা কা সাবজিতের বাসিন্দা মনোজ চান্ডিলের ছেলে আশিস। দীর্ঘ ১৮ মাস ধরে অদ্ভুত রোগে ভুগছিল সে। সারাদিন প্রচুর খাওয়াদাওয়া করলেও কখনই শৌচাগারে যেতে হয়নি। কিন্তু আবার কখনও শরীর খারাপও হয়নি।

[আরও পড়ুন:‌ OMG! বাড়ির ছাদে উল্কা পড়ে রাতারাতি কোটিপতি দরিদ্র যুবক]

ছেলে দিনে অন্তত ১৮ থেকে ২০টি রুটি খাচ্ছে। তা সত্ত্বেও শৌচাগারে যায় না। বিষয়টি দেখেই দুশ্চিন্তায় পড়েন আশিসের বাবা মনোজ এবং পরিবারের বাকি সদস্যরা। এরপর একাধিক চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়া হয় আশিসকে। একাধিক পরীক্ষাও করা হয়। কিন্তু কোনও কিছুতেই আসল রোগ কী,‌ তা বুঝতে পারেননি চিকিৎসকরা। আপাতত ভবিষ্যতে ছেলের যাতে বড় কোনও অসুখ না হয়, সেই নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছে গোটা পরিবার। এমতাবস্থায় চিকিৎসকেরা আরও নানান পরীক্ষার কথা জানাচ্ছেন। তাঁদের বক্তব্য, সব দিক পরীক্ষা না করলে কোনও সম্ভাবনার কথা জানানো উচিত হবে না।

এদিকে, এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই অনেকেই অবাক হয়েছেন। নেটিজেনদের কেউ কেউ আবার ভাল কোনও চিকিৎসককে দেখানোর পরামর্শও দেন। তবে এই প্রথম নয়, এর আগেও দেশে এ ধরনের বেশ কিছু ঘটার নজির রয়েছে। এখন দেখার আশিস কোনও গুরুতর অসুখে ভুগছে কি না!‌

[আরও পড়ুন:‌ প্রার্থীর নাম ‘করোনা’, কেরলের পুরসভা নির্বাচনের আগে বিড়ম্বনায় বিজেপি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে