১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৬ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

OMG! বাড়ির ছাদে উল্কা পড়ে রাতারাতি কোটিপতি দরিদ্র যুবক

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: November 19, 2020 5:30 pm|    Updated: November 19, 2020 5:33 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভগবান যখন কাউকে ধনসম্পত্তি দেয় তখন নাকি আকাশ থেকেও টাকা পড়ে! প্রাচীন এই প্রবাদবাক্যই শেষ পর্যন্ত সত্যি হল ইন্দোনেশিয়া (Indonesia)’র এক যুবকের জীবনে। বাড়ির টিনের চাল ভেঙে উল্কাপিণ্ড পড়ে রাতারাতি কোটিপতি হলেন জোসুয়া হুটা গালুঙ্গ নামে ৩৩ বছরের যুবক। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ঘটনাটির কথা জানতে পেরে হতবাক হয়ে পড়েছেন নেটিজেনরা।

ইন্দোনেশিয়ার সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, সম্প্রতি নিজের বাড়ির কাছে একটি কফিন তৈরির কাজ করছিলেন উত্তর সুমাত্রার (Sumatra) কোলাঙ্গের বাসিন্দা জোসুয়া হুটা গালুঙ্গ (Josua Hutagalung)। আচমকা আকাশ থেকে দ্রুতগতিতে একটি উল্কা এসে তাঁর বাড়ির টিনের চাল ভেঙে ঘরের মধ্যে পড়ে। জোসুয়া ঘরে গিয়ে দেখেন একটি বড় পাথরখণ্ডের মতো জিনিস তাঁর ঘরের মেঝেতে অনেকটা গেঁথে রয়েছে। প্রচণ্ড গরম অবস্থাতেও ছিল অদ্ভূতদর্শন ওই পাথরটা। পরে সেটি ঠান্ডা হলে স্থানীয় প্রশাসনিক আধিকারিকদের কাছে নিয়ে যান তিনি।

[আরও পড়ুন: মাত্র ৮৭ ঘণ্টায় সাতটি মহাদেশে ভ্রমণ! অবিশ্বাস্য বিশ্বরেকর্ড আমিরশাহীর তরুণীর ]

ওই পাথরখণ্ডটিকে পরীক্ষা করে জানা যায়, সেটি সাড়ে চার বিলিয়ন বছরের পুরনো একটি উল্কাপিণ্ডের অংশ। আর তার মূল্য হল প্রতি গ্রাম ৮৫৭ ডলার। অর্থাৎ এই উল্কাপিণ্ড (meteorite)টি বিক্রি করে ১০ কোটির বেশি টাকা রোজগার হবে জোসুয়ার।

এপ্রসঙ্গে জোসুয়া বলেন, বাড়ির বাইরে একটি কফিন তৈরি করছিলাম। আচমকা বিকট শব্দ করে আমার ছাদের টিনের চালে কিছু একটা পড়ে। ভিতরে গিয়ে দেখি অদ্ভূতদর্শন একটি পাথরখণ্ডের মতো জিনিস গরম অবস্থায় মাটিতে গেঁথে রয়েছে। পরে সেটি ঠান্ডা হলে প্রশাসনের আধিকারিকদের দেখাই। ওই বস্তুটি বিক্রি করে ১০ কোটির বেশি টাকা পাব বলে জানতে পেরেছি। সেখান থেকে কিছু টাকা নিয়ে এলাকায় একটা গির্জা তৈরি করব। আমার তিনটে ছেলে থাকলেও একটা মেয়ে নেই। এখন সেই আশাও পূরণ হবে বলে মনে করছি।

[আরও পড়ুন: OMG! সাংবাদিক বৈঠকে কাঁচা মাছ চিবিয়ে খাচ্ছেন প্রাক্তন মন্ত্রী! দেখুন ভাইরাল ভিডিও]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement