২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অনিচ্ছাকৃত অন্যের মাথায় মাথা ঠুঁকে গেলে আরও একবার মাথাটা ঠুঁকে নেন অনেকে। এই ভয়ে, যে পাছে সিং না গজায়। এর বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা না থাকলেও সমাজে এ বিশ্বাসের প্রচলন রয়েছে দীর্ঘদিনই। কিন্তু এবার বাস্তবেই এমনটা হয়েছে। মাথায় ঠোঁকা খেয়ে না হলেও মাথায় আঘাত পেয়ে আস্ত একটি সিং গজিয়েছে এক ব্যক্তির!

[আরও পড়ুন: ১৯ বছর পর গন্তব্যে পৌঁছল স্পিড পোস্টে পাঠানো চিঠি! অবাক কাণ্ড রায়গঞ্জে]

৭৪ বছরের শ্যামলাল যাদব মধ্যপ্রদেশের সাগর জেলার রহলি গ্রামের বাসিন্দা। বছর কয়েক আগে মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়েছিলেন তিনি। তারপরই মাথার সামনের অংশটা ফুলে যায়। আর তারপরই সেখানে সিংয়ের মতোই একটি পিণ্ড গজিয়ে ওঠে। যতদিন যায়, আরও উঁচু হতে থাকে সেই সিং। প্রথম প্রথম মাথার তালুতে এই অদ্ভুত জিনিসটি দেখে বেশ অবাক হতেন শ্যামলাল বাবু। তবে পরে বিষয়টির তাঁর কাছে স্বাভাবিক হয়ে ওঠে। অনেক সময় নিজে নিজেই সেটি কেটে ফেলার চেষ্টাও করেছেন তিনি। কিন্তু তা ক্রমেই সিংয়ের আকার ধারণ করায় চিন্তার ভাঁজ পড়ে শ্যামলালের কপালে। শেষমেশ তিনি চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। কিন্তু চিকিৎসকরাও প্রথমে ঠাউর করে উঠতে পারেননি, এ বস্তু কীভাবে মাথায় আবির্ভূত হল। তবে পরীক্ষার পর জানান, এটি আসলে সেবাসিয়াস হর্ন, যা ডেভিলস হর্ন নামেও পরিচিত। শরীরের যে অংশটি সবচেয়ে বেশি রোদ পায়, সাধারণত এটি সেখানেই গজিয়ে ওঠে। তাঁর মাথায় আঘাত লাগার পরই এটি দেখা দিয়েছিল। তবে এটি অত্যন্ত বিরল ঘটনা।

man-with-horn

[আরও পড়ুন: অতিবৃষ্টি রুখতে বিচ্ছেদ করানো হল ২ মাস আগে বিয়ে হওয়া দুই ব্যাঙের]

তাঁরা জানান, অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তা সরিয়ে ফেলা সম্ভব। চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে সাগর জেলার এক হাসপাতালে অস্ত্রোপচারের পর সম্প্রতি শ্যামলালের মাথা থেকে নামে সিং। হাঁফ ছেড়ে বাঁচেন তিনি। ডক্টর বিশাল জানান, এক্স-রে-তে দেখা গিয়েছে, এর শিকড় মাথার খুব ভিতর পর্যন্ত পৌঁছয়নি। সেই জন্যই অস্ত্রোপচার সম্ভব হয়েছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং