১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ছ’দশক ধরে মূক-বধিরের অভিনয়! সত্যি জেনে বিচ্ছেদের মামলা স্ত্রী’র

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: March 8, 2019 9:46 pm|    Updated: March 8, 2019 9:52 pm

Man faked being deaf and dumb for 62 years.

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক : স্ত্রীর অবিরাম কথা শুনতে শুনতে ক্লান্ত হয়ে গিয়েছিলেন। রেহাই পাওয়ার উপায় বের করলেন নিজেই। টানা ৬২ বছর ধরে মূক ও বধিরের অভিনয় করে গেলেন আমেরিকার এক ব্যক্তি। শেষরক্ষা অবশ্য হয়নি। বিষয়টি জানতে পেরে বিবাহবিচ্ছেদের মামলা ঠুকেছেন তাঁর স্ত্রী। অদ্ভুত ঘটনা আমেরিকার কানেটিকাটের ওয়াটারবারি এলাকার। এই মামলার শুনানির জন্য শনিবার দুজনেই প্রথম আদালতে হাজিরা দেবেন। জানা গেছে, ওয়াটারবারির বাসিন্দা ৮৪ বছরের ব্যারি ডাওসন ছ দশকের বেশি সময় ধরে স্ত্রী ডরোথির সঙ্গে সংসার করছেন। কিন্তু স্ত্রীর বাড়তি কথা শুনবেন না বলে মূক-বধির সেজেই এতদিন কাটিয়েছেন।

আদালতে দাখিল করা বিবাহবিচ্ছেদের আবেদনে সে কথা উল্লেখ করে ব্যারির ৮০ বছরের স্ত্রী ডরোথি দাবি করেন, স্বামীর সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনের জন্য সাইন ল্যাঙ্গুয়েজ শিখেছেন তিনি। কিন্তু, তারপরও স্বামীকে নিজের কথা বুঝিয়ে উঠতে পারতেন না। তাঁর কোনও কথাই বুঝতে চাইতেন না ব্যারি। কোন কথাও  তাঁকে বলতে শোনেননি কেউ।

[মাদকাসক্তদের ছবি আঁকা শিখিয়ে মূলস্রোতে ফেরাচ্ছেন শিলিগুড়ির যুবক]

শুধু স্ত্রী-ই নন, ছ’টি সন্তান ও ১৩ জন নাতি,নাতনিও মনে করত, ব্যারি সত্যিই বধির। তাঁদের অভিযোগ, গত ছ দশক ধরেই এভাবেই তাঁকে ও বাড়ির প্রতিটি সদস্য ঠকিয়েছেন ব্যারি। তাই স্ত্রী আর তাঁর সঙ্গে সংসার করতে চাইছেন না। পাশাপাশি এতদিন ধরে এভাবে তাঁর উপর মানসিক অত্যাচার ও চাপ তৈরি করার জন্য আর্থিক ক্ষতিপূরণ দিতে হবে ব্যারিকে।এপ্রসঙ্গে ব্যারি ডাওসনের আইনজীবী রবার্ট সানচেজ দাবি করেন, স্ত্রীকে ঠকানোর কোনও উদ্দেশ্য ছিল না অশীতিপর ওই বৃদ্ধের। তাই জন্যই তাঁদের সংসার ৬২ বছর ধরে কোন ঝামেলা ছাড়াই চলেছে। কিন্তু ব্যারির এহেন আচরণে আত্মীয়, পরিজন, প্রতিবেশীরা সকলেই  যারপরনাই বিরক্ত এবং বিস্মিতও। কীভাবে এতগুলো বছর সব শুনতে পাওয়ার পরও একেবারে চুপ করে রইলেন তিনি? এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতেই আপাতত ব্যস্ত সবাই।

[দূরদর্শনের সিগনেচার টিউনে ব্রেক ডান্স, ভাইরাল ভিডিও]

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে