২৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  রবিবার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পরিকল্পনা ছাড়া বর্তমানে সন্তানের জন্ম দেন খুব কম সংখ্যক দম্পতি। আর পরিকল্পনা না করেই যদি গর্ভবতী হন কেউ, তবে তা ঠিকই বুঝতে পারেন মহিলারা। কিন্তু ব্যতিক্রম যে হয়। তাই যেন প্রমাণ করলেন মডেল আইরিন ল্যাংমেড। প্রসবের মাত্র দশ মিনিট আগে বুঝতে পারলেন তিনি গর্ভবতী। যা শুনে অবাক হচ্ছেন প্রত্যেকেই। চোখ কপালে উঠছে চিকিৎসকেরও।

আইরিন ল্যাংমেড পেশায় একজন মডেল। তাই স্বাভাবিকভাবেই তিনি স্বাস্থ্য সম্পর্কে ভীষণ সচেতন। আয়নার সামনে প্রতিনিয়তই দাঁড়াতেন। তবে চেহারায় কোনও বদল দেখতে পাননি। না মোটা হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। আর না ভুঁড়ি বেড়েছিল আইরিনের। দিব্যি একইরকম ছিমছিমে চেহারাই ছিল তাঁর। সাধারণত অন্তঃসত্ত্বার যেমন সকালে ঘুম থেকে উঠতে কষ্ট হয় তেমন কিছু কখনও হয়নি আইরিনের। মুখে-চোখে ছিল না অলসতার ছাপও।

তবে আচমকাই একদিন পেটে যন্ত্রণা শুরু হয় আইরিনের। সেই সময় মডেল ছিলেন শৌচালয়ে। কোনওক্রমে ঘরে ঢুকে স্বামীকে অস্বস্তির কথা জানান। তড়িঘড়ি তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় নার্সিংহোমে। প্রাথমিক চিকিৎসার পর জানিয়ে দেওয়া হয় আদতে তিনি অন্তঃসত্ত্বা। তাই তাঁর পেটে যন্ত্রণা হচ্ছে। অবাক হয়ে যান ওই মডেল এবং তাঁর স্বামী। কারণ, গর্ভনিরোধক ওষুধ ব্যবহার করে যৌনতায় মাততেন তাঁরা। এছাড়া তাঁর শরীরে কোনও পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়নি। তাই ওই মডেল বুঝতেই পারেননি তিনি অন্তঃসত্ত্বা। বেশ কিছুক্ষণ পর সুস্থ সন্তানের জন্মও দেন।

[আরও পড়ুন: স্বামীর চাকরি হাতিয়ে প্রেমিকের সঙ্গে ঘর বাঁধার ছক, স্টেশন মাস্টার খুনে চাঞ্চল্যকর মোড়]

প্রসবের মাত্র ১০ মিনিট আগে মডেল অন্তঃসত্ত্বা বুঝতে পেরেছেন তা শুনেই চমকে উঠছেন প্রায় সকলেই। অনেকের প্রশ্ন, এ-ও সম্ভব? অবাক হচ্ছেন চিকিৎসকরাও। তবে চিকিৎসা বিজ্ঞানে এমন উদাহরণ যে নেই, তেমন নয়। চিকিৎসকদের একাংশ বলছেন, প্রতি ২৫০০ মহিলার মধ্যে একজনের ক্ষেত্রে এমন ব্যতিক্রমী গর্ভধারণের কথা শোনা যায়। শেষ মুহূর্তে গর্ভধারণের কথা বুঝতে পারায় প্রসবের ক্ষেত্রেও ঝুঁকি থেকে যায় বেশ খানিকটা। তবে আইরিনের ক্ষেত্রে বিপদের আশঙ্কা ছিল অনেকটাই কম। আপাতত সুস্থ রয়েছে সদ্যোজাত এবং মা। ইনস্টাগ্রামে সদ্যোজাত এবং স্বামীর সঙ্গে ছবি শেয়ার করে সেকথাই জানান আইরিন।

Erin Langmaid

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং