BREAKING NEWS

২ বৈশাখ  ১৪২৮  শুক্রবার ১৬ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

এই নাহলে উপহার! দু’মাসের সন্তানের জন্য চাঁদে জমি কিনলেন বাবা

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: March 26, 2021 3:00 pm|    Updated: March 26, 2021 3:00 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পৃথিবীর প্রত্যেক সন্তানই তাঁর মা-বাবার কাছে নয়নের মণি। ছেলে-মেয়ের খুশির জন্য মা-বাবারা যেকোনও অসাধ্য সাধন করে ফেলতে পারেন। সন্তান যা চাইবে, বেশিরভাগ সময়ই তা এনে দেওয়ার চেষ্টা করেন তাঁরা। ফের একবার সেকথা প্রমাণও করলেন গুজরাট (Gujrat) সুরাটের (Surat) এক ব্যবসায়ী। নিজের দু’মাসের সন্তানের জন্য চাঁদে কিনে ফেললেন জমি। হ্যাঁ, শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি।

জানা গিয়েছে, সুরাটের ওই ব্যবসায়ীর নাম বিজয়ভাই কাঠারিয়া। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, বিজয়ভাই নামে ওই ব্যবসায়ী নিজের ছোট ছেলে দু’মাসের নিত্যর জন্য চাঁদে এক একর জমি কিনেছেন। এজন্য তিনি গত ১৩ মার্চ নিউইয়র্কে অবস্থিত (New York) ইন্টারন্যাশনাল লুনার রেজিস্ট্রিতে (International Lunar Registry) ই-মেল করেন। কয়েকদিনের মধ্যেই সংস্থার পক্ষ থেকে সবুজ সংকেতও পান। আর তারপরই পাঠিয়ে দেন জরুরি কাগজপত্র।

[আরও পড়ুন: গল্প দেব তো অল্প নয়! জিতলেই সবাইকে আইফোন, চাঁদে পাঠানোর প্রতিশ্রুতি নির্দল প্রার্থীর]

এরপরই ওই ব্যবসায়ীর ছেলের নামে চাঁদের জমির সমস্ত কাগজপত্র চলে আসে। জানা গিয়েছে, চাঁদের দূরের অংশ মেয়ার মোসকভিয়েন্সে ওই জমিটি কেনা হয়েছে। জমিটির আসল দাম প্রকাশ্যে না এলেও, মনে করা হচ্ছে, চাঁদে এক একর জমি কিনতে ওই ব্যক্তির ৭৫০ ডলার অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৫০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। এর ফলে সুরাটের প্রথম ব্যবসায়ী হিসেবে চাঁদে জমি কেনার নজির গড়লেন তিনি। যদিও আসলে বিজয়ভাইয়ের ছেলে মোটেই ওই জমির মালিক হবে না। তবে শংসাপত্রে জমির মালিকানা থাকবে নিত্যর নামেই। এই প্রথম নয়, এর আগেও অনেকেই এভাবে চাঁদে জমি কিনেছেন। ঠিক যেমন রাজস্থানের বাসিন্দা ধর্মেন্দ্র আনিজা। স্ত্রী স্বপ্না আনিজাকে বিয়ের উপহার দিতে তিনি চাঁদে তিন একর জমি কিনেছিলেন।

[আরও পড়ুন: ‘গুলিতে ভয় নেই কিন্তু সূঁচে আতঙ্ক’, টিকা নিতে গিয়ে এ কী কাণ্ড করলেন জওয়ান?]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement