Advertisement
Advertisement
Kumari Puja

ত্রয়োদশী তিথিতে রীতি মেনে কঙ্কালিতলায় কুমারীপুজো, মন্দিরে ভক্তের ঢল

৪৭ বছর ধরে চলছে এই বিশেষ পুজো।

৪৭ বছরের প্রাচীন রীতি মেনে শুক্রবার অর্থাৎ ত্রয়োদশী তিথিতে বীরভূমের কঙ্কালিতলার মন্দিরে কুমারী পুজোর আয়োজন। সকাল থেকে ভক্তরা হাজির হয়েছেন মন্দিরে।

কুমারী পুজোর জন্য ভোর থেকে শুরু হয় নাম লেখার পালা। এতে অংশগ্রহণ করতে পারে ৫ থেকে ১২ বছরের নাবালিকারা।

কুমারীদের বেছে নেওয়ার পর প্রথমে নিয়ে যাওয়া হয় কোপাই নদীতে। সেখানে স্নান করিয়ে, ঘট পুজো দিয়ে প্রস্তুত করা হয় কুমারীদের। পরানো হয় লাল পাড় সাদা শাড়ি।

প্রস্তুত করিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় পঞ্চবটি বটবৃক্ষের নিচে। বটবৃক্ষের তলায় বসিয়ে শুরু হয় পুজো।

৫১ জনের মধ্যে একজন কুমারীকে রাজকুমারী হিসাবে বেছে নেওয়া হয়। তাকে বিশেষ রীতিতে পুজো করা হয়।

মন্দির চত্বরে ৫১ কুমারীকে একসঙ্গে বসিয়ে চলে হোমযজ্ঞ, পুজোপাঠ। কথিত আছে, সতীরূপে দেবীর একান্নটি খণ্ড হয়েছিল। সেই একান্ন খণ্ডের উদ্দেশ‍্যেই ৫১ কুমারীকে পুজো করা হয়।

পুজো শেষে আয়োজন করা হয় ভোগের। একত্রিত হয়ে ভোগ খায় কুমারীরা।

কঙ্কালিতলার কাপাসটিকুড়ি গ্রামের মন্দিরের পুরোহিত বুদ্ধদেব চট্টোপাধ্যায় কঙ্কালিমায়ের স্বপ্নাদেশ পেয়ে ত্রয়োদশীর দিন এই কুমারি পুজোর সূচনা করেছিলেন। সেই থেকেই দুর্গাপুজোর পরের ত্রয়োদশীর দিনে এই পুজো হয়ে আসছে।