১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

পুজোয় নিশ্চিন্তে বেহালায় আসুন, সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারে ক্লাবগুলি

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: October 5, 2018 9:22 pm|    Updated: October 5, 2018 10:44 pm

Pujo organizers starts campaign to encourage people to visit Behala

তনুময় ঘোষাল: পুজো তো বরাবরই হত৷ কিন্তু থিমের পুজোর চালু হতেই বেহালার আকর্ষণ একধাক্কায় বেড়ে গিয়েছে বহুগুণ৷ সত্যি কথা বলতে, বেহালাকেই থিমের পুজোর পথিকৃৎ বলা চলে৷ প্রতি বছরই পুজো দর্শনার্থীদের ঢল নামে দক্ষিণ শহরতলির এই অঞ্চলে৷ কিন্তু, এবার পুজোয় বেহালায় ঠাকুর দেখতে যাওয়া যাবে তো? আশঙ্কায় শহরবাসী৷ কারণ, মাঝেরহাট সেতু ভেঙে পড়েছে।  পুজো উদ্যোক্তারা অবশ্য বলছেন, বেহালার অবস্থা যতটা খারাপ বলে প্রচার করা হচ্ছে, পরিস্থিতি আদৌও ততটা খারাপ নয়৷ শুধু মুখের কথা নয়, এবার পুজোয় লোক টানতে রীতিমতো জোট বেঁধে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারও চালাচ্ছে বেহালার পাঁচটি ক্লাব৷

[পুজোর চারদিন কীভাবে কাটাবেন প্রিয়াঙ্কা-সোহিনী-পায়েল?]

গত ৪ সেপ্টেম্বর বিকেলে আচমকাই হুড়মু়ড়িয়ে ভেঙে পড়ে মাঝেরহাট সেতুর একাংশ৷ মারা যান চারজন৷ আহতও হন অনেকেই৷ মাঝেরহাটের সেতু কেন ভেঙে পড়ল? দায় কার? দুর্ঘটনার পর রাজনৈতিক তরজাও চলেছে বেশ কয়েকদিন৷ কিন্তু, বেহালা-সহ দক্ষিণ শহরতলির বিস্তীর্ণ এলাকার মানুষের ভোগান্তি তো আর কমেনি৷ শহরের বাকি অংশের সঙ্গে বেহালার যোগাযোগের প্রধান মাধ্যম ছিল এই মাঝেরহাটে সেতু৷ ফলে এখন শহর থেকে দক্ষিণ শহরতলির এই অঞ্চল কার্যত বিচ্ছিন্ন বলা চলে৷ ঘুরপথে চলছে বাস-ট্রাম সহ অন্যান্য গাড়ি৷ কিন্তু, তাতে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি কমছে না, উলটে লেন-বাইলেন দিয়ে বাস, লরির মতো বড় গাড়ি চলাচলের কারণে নিত্য যানজট লেগেই আছে৷ ৪৫ মিনিটের পথ পেরতে সময় লাগছে দু থেকে তিন ঘণ্টা!

মাঝেরহাট সেতু বিপর্যয়ের তদন্তে উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গড়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সেতুর বাকি অংশ ভেঙে নতুন সেতু তৈরি করা হবে৷ কাজও চলছে জোরকদমে৷ আর ততদিন পর্যন্ত বেহালায় ট্রাফিক ব্যবস্থা সচল রাখতে প্রশাসনের চেষ্টার খামতি নেই৷ বেহালার পুজোর উদ্যোক্তাদের দাবি, সেদিকে নজর নেই কারও৷ বরং বেহালার বেহাল দশা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া-সহ সর্বত্র অপপ্রচার চলছে৷ ফলে জনমানসে ধারণা তৈরি করে দেওয়া হচ্ছে, যে বেহালায় এলেই বিপদে পড়তে হবে৷ এমনও বলা হচ্ছে, যে এবার পুজোয় নাকি কেউ আর বেহালামুখী হবেন না৷ এই প্রচারের বিরুদ্ধেই একজোট বেহালা নূতন সংঘ, বেহালা ক্লাব, ২৯ পল্লি, মুকুল সংঘ, দেবদারু ফটকের মতো বড় পুজোগুলি৷ বেহালা নূতন সংঘের সদস্য অভিষেক ভট্টাচার্য বলেন, মাঝেরহাট সেতু বিপর্যয়ে বেহালার ট্রাফিক ব্যবস্থা ধাক্কা খেয়েছে ঠিকই৷ কিন্তু, যতটা প্রচার করা হচ্ছে, পরিস্থিতি ততটাও খারাপ নয়৷ বেহালাকে সচল রাখতে প্রশাসন অক্নান্ত পরিশ্রম করছে৷ পুজোয় দর্শনার্থীদের তেমন কোনও সমস্যায় পড়তে হবে না৷ কিন্তু মুখের কথায় তো আর চিঁড়ে ভিজবে না! ‘অপপ্রচারের’ বিরুদ্ধে পালটা প্রচারের নেমেছে বেহালা নূতন সংঘ৷ এই উদ্যোগে শামিল বেহালা ক্লাব, ২৯ পল্লি, মুকুল সংঘ, দেবদারু ফটকও৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় জোরকদমে চলছে প্রচার৷ বেহালার সম্পর্কে ভ্রান্ত ধারনা দূর করতে এলাকার সমস্ত পুজো কমিটি এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন বেহালা নূতন সংঘের সদস্য অভিষেক ভট্টাচার্য৷

[ আমার দুগ্গা: পুজোর সময় মেলা দেখার অন্য অনুভূতি ছিল]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে