৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

শান্তনু কর, জলপাইগুড়ি: অনীক দও থেকে হয়েছেন অ্যানি দও চক্রবর্তী। মিলেছে ভারতসুন্দরীর খেতাব। রূপান্তরকামী জীবনে এবার দুর্গা রূপে আবির্ভূত হতে চলেছেন জলপাইগুড়ি নয়াবস্তি পাড়ার বউমা। পুরুষ থেকে নারী হয়ে ওঠার পথে চমক ছিলই। তবে দুর্গা হয়ে ওঠাই জীবনে সবচেয়ে বড় এবং শক্ত চ্যালেঞ্জ মানছেন অ্যানি।

[আরও পড়ুন: বাইকে চড়ে এসে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে দুষ্কৃতীদের গুলি, মৃত্যু সিপিএম কর্মীর]

সমলিঙ্গে প্রেম। সাতপাকে বাঁধা পড়ার আকাঙ্ক্ষায় লিঙ্গ পরিবর্তন করে অনীক থেকে অ্যানি হয়ে ওঠা। অনেকটা ছকভাঙা পথ পরিক্রমা। জলপাইগুড়ির নয়াবস্তি পাড়ার সাগ্নিক চক্রবর্তীকে বিয়ে করে সুখী গৃহকোণ। কিন্তু এখানেই থেমে থাকেনি বালুরঘাটের চকভৃগুর অ্যানি। মহিষাসুরমর্দিনী রূপে নিজেকে মেলে ধরতে এখন দিনরাত এক করে চলছে মহড়া। কিছুদিন আগেই রূপান্তরকামীদের ভারত সুন্দরী প্রতিযোগিতায় সেরার সেরা মুকুট মাথায় উঠেছে তাঁর। কিন্তু মঞ্চে দুর্গা হয়ে ওঠাই এখন বড় চ্যালেঞ্জ বলে জানিয়েছেন অ্যানি।

Anny-Dutta

[আরও পড়ুন: ‘বাংলার জন্য নির্লজ্জভাবে পক্ষপাতিত্ব করতেও রাজি’, বনসৃজনের ফান্ড নিয়ে বললেন বাবুল]

গত বছর অক্টোবর মাসে জলপাইগুড়ি শহরের নয়াবস্তি পাড়ার বাসিন্দা পেশায় প্রাথমিক স্কুলের সাগ্নিক চক্রবর্তীর সঙ্গে বিয়ে হয় বালুরঘাটের চকভৃগুর অ্যানির। তিনি নিজেও বালুরঘাটে প্রাথমিক স্কুলে শিক্ষকতা করেন। বিয়ের আগে থেকে মডেলিংয়ের নেশা। ২০১৬ সালের বর্ষ শেষের রাতে কলকাতার এক নাইট ক্লাবে সাগ্নিকের সঙ্গে পরিচয়।

Anny-Dutta

ততদিনে লিঙ্গ পরিবর্তন করে বালুরঘাটের অনীক দও পরিচিত হয়ে উঠেছে অ্যানি নামে। নাইট ক্লাবের পরিচয় পর্ব থেকেই প্রেমের সূচনা। তা পরিণয়ের আসর পর্যন্ত পৌঁছতে বেশি সময় লাগেনি।

Anny-Dutta

দুই বাড়ির সম্মতিতে ধুমধাম করে বিয়ে হয় সাগ্নিক ও অ্যানির। বিয়ের পর মধুচন্দ্রিমা সেরে শাশুড়ি মৌসুমী চক্রবর্তীর সঙ্গে কিছুদিন সংসারের কাজে মন দিয়ে পেশার তাগিদে বালুরঘাটে ফিরে যান অ্যানি। তিনি বলেন, “মাসছয়েক মডেলিং থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখলেও রূপান্তরকামীদের বিশ্ব সুন্দরী প্রতিযোগিতার ডাক ফেরাতে পারিনি।

Anny Dutta

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং