১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ৫ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ৫ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কথিত আছে স্নানযাত্রার পনেরো দিন পর রথে চড়ে মাসির বাড়ি যান জগন্নাথ, বলরাম এবং সুভদ্রা৷ বৃহস্পতিবারই রথযাত্রা৷ তাই ইতিমধ্যে জগন্নাথ ধামে প্রস্তুতি তুঙ্গে৷ কিন্তু জানেন কি রথের দিন কিছু নিয়ম মানলেই ঘুরতে পারে আপনার রথের চাকা৷ আপনার জন্য রইল সেই টিপস৷

১. রথযাত্রার পুণ্য তিথিতে আপনার সংসারের শ্রীবৃদ্ধি চাইলে ভোর ভোর ঘুম থেকে উঠুন৷ সকাল সকাল সেরে নিন গঙ্গাস্নান৷ এরপর পারলে একটি নতুন পোশাক পরুন৷ তবে তা না থাকলে কোনও সমস্যা নেই যেকোন শুদ্ধ বস্ত্র পরলেও চলবে৷

[ আরও পড়ুন: জগন্নাথদেবের স্নানযাত্রা উপলক্ষে মেতে উঠল পুরী থেকে মায়াপুর]

২. গঙ্গাস্নান সেরে ফেরার পথে এলাকার শিব বা বিষ্ণু মন্দিরে যান৷ পরপর তিনটি মন্দিরে ঢুকে ফল দান করুন৷ এবার ওই তিনটি ফলের একটি অন্তত বাড়িতে নিয়ে আসুন৷ এক্কেবারে রথযাত্রা তিথির এক্কেবারে শেষের দিকে ওই ফল কেটে পরিবারের সকলকে দিয়ে নিজেও খান৷

৩. এবার আসুন পুজোর ঘরে৷ আপনার ঠাকুর ঘরে নিশ্চয়ই জগন্নাথ, বলরাম, সুভদ্রার মূর্তি রয়েছে? উত্তর হ্যাঁ হলে এবার মন দিন পুজোর কাজে৷ তিন দেবদেবীর মূর্তিতে ভক্তি ভরে তুলসী এবং গোলাপ ফুল অর্পণ করুন৷ পারলে নিজে হাতে গোলাপ ফুলের মালা গেঁথে জগন্নাথ, বলরাম এবং সুভদ্রার গলায় পরান৷ তিন দেবদেবীকে প্রসাদ হিসাবে গোটা ফল খেতে দিন৷

[ আরও পড়ুন: সংসারে সুখ সমৃদ্ধি চাইলে অম্বুবাচীতে এই কাজগুলি ভুলেও করবেন না]

৪. রথের দিন দান ধ্যান করতে কিন্তু ভুলবেন না৷ এদিন এলাকার গরীব মানুষ কিংবা শিশুদের হাতে সাধ্যমতো খাবারদাবার তুলে দিন৷

৫. নিশ্চয়ই জানেন, নির্দিষ্ট সময় অনুযায়ী এদিন রাস্তায় রথ বেরোয়৷ টানতে না পারলে ক্ষতি নেই৷ অন্তত একবার সুযোগ বুঝে রথের রশিতে স্পর্শ করুন৷ একটি গোটা ফল রথে দিন৷ দেখবেন, আপনার ভাগ্য ফিরতে বাধ্য৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং