১ আশ্বিন  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাটি ছেড়ে এবার সিমেন্টে গড়ে উঠল নৈহাটির বিখ্যাত বড়মার মূর্তি। বৃহস্পতিবার কৌশিকী অমাবস্যায় স্থাপন করা হবে মূর্তিটি। তাই সকাল থেকেই শুরু হয়েছে প্রস্তুতি। ইতিমধ্যেই ভিড় জমিয়েছেন বহু মানুষ।

[আরও পড়ুন: প্রেমিকার সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় স্বামী, মাঝরাতে হানা দিয়ে ধরলেন স্ত্রী]

বহু বছর আগে নৈহাটির অরবিন্দ রোডের ধর্মশালা মোড়ে রক্ষাকালীর পুজো হত। পুজোর পরে গভীর রাতেই প্রতিমা বিসর্জনও দেওয়া হত। পরবর্তীকালে সেই পুজো বন্ধ হয়ে যায়। এরপর বছর পঁচাশি আগে নবদ্বীপের রাশ উৎসবে যান নৈহাটির বাসিন্দা ভবতোষ চক্রবর্তী। সেখানে বিশাল প্রতিমা দেখে ফিরে এসেই ঠিক করেছিলেন কালীপুজো করবেন। সেই থেকেই শুরু পুজো। তবে, কালীরূপে নয়, নৈহাটিতে দেবী পূজিতা হন বড়মা রূপে। এই প্রতিমার উচ্চতা হয় ২২ ফুট। বড়মার মূর্তিই নৈহাটির সব থেকে বড় মূর্তি। নৈহাটির কোনও প্রতিমার উচ্চতাই এর থেকে বেশি হয় না। এমনকী বড়মার পুজো শুরু হলে তারপরই অন্য পুজো শুরু হয়।

জানা গিয়েছে, ২০১২ সালে শেষ মাটি দিয়ে বড়মার মূর্তি নির্মাণ করা হয়। দীর্ঘ আট বছরে মূর্তিটির কিছু কিছু অংশ নষ্টও হতে বসেছিল। এরই মধ্যে মূর্তিটি যিনি তৈরি করেছিলেন তিনি স্বপ্নাদেশ পান। জানান, বড়মা নিজেই তাঁকে বলেছেন মূর্তিটি শক্তপোক্ত করতে। এরপরই পুজো কমিটিকে গোটা বিষয়টি জানান তিনি। ওই প্রতিমা শিল্পীই পরামর্শ দেন সিমেন্টের প্রতিমা নির্মাণের। পুজো কমিটির সম্পাদক তাপসবাবু জানান, মাত্র ১৫ দিনের মধ্যেই ২২ ফুটের বড়মার মূর্তি তৈরি করে দিয়েছেন ওই শিল্পী। বৃহস্পতিবার সেই মূর্তিতেই হবে পুজো। 

[আরও পড়ুন: কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজে আগুন, আতঙ্ক ছড়াল রোগীদের মধ্যে]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং