১০ মাঘ  ১৪২৬  শুক্রবার ২৪ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১০ মাঘ  ১৪২৬  শুক্রবার ২৪ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ১৮ হাজার বছর আগে কেমন দেখতে ছিল কুকুর? আজকের মতোই দেখতে ছিল নাকি প্রাচীন লোমশ কোনও জীব অভিব্যক্তির পর পরিণত হয়েছে কুকুরে? এ সবেরই উত্তর দিল সাইবেরিয়ায় আবিষ্কৃত একটি মৃত প্রাণী। তুষারে জমে থাকার কারণে অক্ষতই রয়েছে সেটি। দাঁত ও নখও রয়েছে অবিকৃত। প্রাণীটির দেহ এতটাই অবিকৃত রয়েছে, যে দেখে মনে হচ্ছে যেন সম্প্রতি তার মৃত্যু হয়েছে।

সাইবেরিয়ার উত্তরে, বেলায়া গোরা থেকে ২ ঘণ্টার দূরত্বে এই প্রাণীটি আবিষ্কৃত হয়েছে। স্টকহোমের কয়েকজন গবেষক ২০১৮ সালে এটি খুঁজে পান। এরপর প্রাণীটি নিয়ে গবেষণা চালান তাঁরা। তারপর সিদ্ধান্তে আসেন, প্রাণীটি একটি পুরুষ কুকুর। মাত্র দু’মাস বয়সে সে মারা যায়। আবিষ্কৃত এই প্রাণিটির নাম রাখা হয়েছে ‘ড্রোগো’। তার দুধের দাঁত ও পুরু লোম থেকে এর বয়স সম্পর্কে জানা গিয়েছে। এর চোখের পাতাও যথাযথ রয়েছে। এরও কোনও পরিবর্তন হয়নি। গবেষক লাভ দালেন ও ডাচ স্ট্যান্টন প্রাণীটিকে সুইডেনে নিয়ে এসেছেন।

[ আরও পড়ুন: বিনা পারিশ্রমিকে রোজ ৪ কিমি রাস্তা ঝাঁট দেন এই যুবক ]

তবে বিজ্ঞানীদের মধ্যে একটি দ্বন্দ্ব রয়েছে। অনেকে আবার বলছেন এটি কুকুর নয়, নেকড়ের শাবক। অথবা কুকুরের প্রজাতির কোনও প্রাণী। দালেন বলেছেন, “আমার মনে হচ্ছে যে প্রাণীটিকে আমরা পেয়েছি, সেটি নেকড়েশাবক। আমরা সম্প্রতি গবেষণার প্রথম পদক্ষেপ অতিক্রম করেছি। তাতে মনে হয়েছে, এটি কুকুর বা নেকড়ে, যে কোনও প্রাণীরই শাবক হতে পারে। তবে স্পষ্ট করে এখনও জানা যায়নি। এর জন্য আরও একটু অপেক্ষা করতে হবে।”

প্রাণীটি তুষার যুগের নেকড়ে হতে পারে বলেও অনুমান বিজ্ঞানীদের। আর যদি এটি কুকুর হয় তবে কুকুরের একেবারে প্রাচীন প্রজাতি বলে দাবি করেছেন বিজ্ঞানীরা। তবে আপাতত প্রাণীটিকে সুইডিশ সেন্টারে পাঠানো হয়েছে। সেখানেই চলছে গবেষণা। সাখে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ডিএনএ ব্যাংক রয়েছে। আবিষ্কৃত এই প্রাণীটির সঙ্গে এখানে রাখা ডিএনএ মিলিয়ে দেখা হবে।

[ আরও পড়ুন: মাদারিহাট স্টেশন চত্বরে তাণ্ডব হাতির, আতঙ্কিত সাধারণ মানুষ ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং