৩০ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জাতীয় পরিবেশ আদালতে মুখ পুড়ল বাংলার। বায়ুদূষণ নিয়ে নির্দেশ মানা হয়নি বলেই রাজ্যকে তিরস্কার করল আদালত। নির্দেশ অনুযায়ী সোমবার মুখ্যসচিব ওই আদালতে যান। ২০২০ সালের মার্চের মধ্যেই দূষণ নিয়ন্ত্রণে সরকার ব্যবস্থা নেবে বলেই জানান মুখ্যসচিব।

কলকাতা ও হাওড়ার বায়ুদূষণ নিয়ে মামলা করেছিলেন পরিবেশকর্মী সুভাষ দত্ত।  অভিযোগ ওঠে বায়ুদূষণ নিয়ে জাতীয় পরিবেশ আদালতের নির্দেশ মানেনি রাজ্য সরকার। বায়ুদূষণ রোধে প্রায় কোনও উদ্যোগই নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ।  সেই মামলায় ২০১৬ সালে সরকারকে পাঁচ কোটি টাকা জরিমানাও করে পরিবেশ আদালত। কেন নির্দেশ মানা হয়নি তা হলফনামা দিয়ে মুখ্যসচিবকে জানাতে হবে বলেই নির্দেশ দেয় গ্রিন ট্রাইবুনাল। সেই নির্দেশ অনুযায়ী সোমবার পরিবেশ আদালতে উপস্থিত হন মুখ্যসচিব। তিনি বলেন, “২০২০ সালের মার্চের মধ্যেই দূষণ নিয়ন্ত্রণ যথাযথ ব্যবস্থা নেবে রাজ্য সরকার।” পরিবেশ কর্মীদের দাবি, আদতে গ্রিন ট্রাইবুনালে মুখ পুড়ল রাজ্যের।

[আরও পড়ুন: শেষ দুঃস্বপ্নের দিন, প্রশাসনের উদ্যোগে কাশ্মীর ছেড়ে ঘরে ফিরলেন ১৩৩ জন বাঙালি শ্রমিক]

এদিকে, চলতি বছর রবীন্দ্র সরোবর ছট পুজো নিয়েও বিতর্কের মুখে রাজ্য সরকার। পরিবেশ আদালতের নিয়ম অমান্য করে এ বছর অবাধে ছট পুজো চলে দক্ষিণ কলকাতার বিখ্যাত সরোবরে। যার জেরে শনিবার থেকেই চলছে সমালোচনার ঝড়। অবাঙালিদের উৎসব উদযাপনের জেরে বিপন্ন মাছ এবং বিভিন্ন ধরনের পরিযায়ী পাখি। পূজার্চনার জেরে সরোবরের জলে ভাসছে তেল, ঘিয়ের আস্তরণ। যার জেরে সোমবার থেকে মাছের মড়ক লেগেছে সরোবরে। ভেসে উঠতে দেখা গিয়েছে সরোবরে বসবাসকারী কচ্ছপের দেহও। ছট পুজোয় শব্দবাজি এবং ডিজের দাপটে বেশ কিছু ধরনের পাখি উড়ে অন্যত্র চলে গিয়েছে বলেও আশঙ্কা পক্ষীপ্রেমীদের। সরোবরের বিপন্ন অবস্থা পরিবেশপ্রেমীদের কপালে চিন্তার ভাঁজ আরও চওড়া করছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং